চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘প্রেগন্যান্সিটা বিয়ের কারণ নয়’, নেটিজেনের কটাক্ষের জবাবে দিয়া মির্জা

ফেব্রুয়ারি মাসে ব্যবসায়ী বৈভব রেখির সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন বলিউড অভিনেত্রী দিয়া মির্জা। বিয়ের ৪৫ দিনের মাথায় নিজের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর প্রকাশ্যে এনেছেন অভিনেত্রী।

এরপর শুভেচ্ছা বার্তার পাশাপাশি অনেকে কটাক্ষও করেছেন। ট্রোলিংয়ের শিকারও হয়েছেন দিয়া। একজন প্রশ্ন করেছেন, সন্তানসম্ভবা ছিলেন বলেই তড়িঘড়ি করে বিয়ে করেছেন? এই প্রশ্নের জবাব সোশ্যাল মিডিয়ায় দিয়েছেন দিয়া।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

কটাক্ষের উত্তরে দিয়া মির্জা সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন, ‘মজার প্রশ্ন। প্রথমত আমরা একসঙ্গে সারা জীবন কাটাতে চেয়েছি বলেই বিয়েটা করা। বিয়ের প্রস্তুতিপর্ব যখন চলছিল তখন জানতে পারি আমি সন্তানসম্ভবা, তাই প্রেগন্যান্সিটা বিয়ের কারণ নয়।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, চিকিৎসাজনিত কারণে আগেই ঘোষণা দেইনি। এটা আমার জীবনের সবচেয়ে আনন্দের একটি খবর। অনেক বছর অপেক্ষা করেছি এটার জন্য। তাই চিকিৎসাজনিত কারণ ছাড়া আর কোনো কারণে বিষয়টি লুকানোর কিছু নেই।

কিছুদিন আগেই দিয়া ও বৈভব হানিমুনে মালদ্বীপ গিয়েছেন। তাদের সঙ্গে গিয়েছেন দিয়ার সৎ মেয়ে সামাইরা। গত বৃহস্পতিবার দিয়া মির্জা সোশ্যাল মিডিয়ায় মালদ্বীপে তোলা একটি ছবি শেয়ার করেছেন। ছবিতে দিয়া মির্জার বেবি বাম্প দেখা গেছে। ছবির ক্যাপশনে দিয়া জানিয়েছেন তিনি মা হতে চলেছেন।

লকডাউনের সময়ে ব্যবসায়ী বৈভব রেখির সঙ্গে দিয়ার সম্পর্ক গড়ে ওঠে। নিজেদের মধ্যে ভালো বোঝাপড়া থাকায় তারা বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এর আগে দিয়া মির্জা বিয়ে করেছিলেন সাহিল সংঘকে। ২০১৪ সালে তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন। পাঁচ বছর পর ২০১৯ সালে তাদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়।