চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রত্যন্ত মার্শাল দ্বীপপুঞ্জে প্রথম করোনা সংক্রমণ

করোনার প্রভাব থেকে মুক্ত থাকা অল্প কিছু জায়গার একটি মার্শাল দ্বীপপুঞ্জেও এবার ধরা পড়লো করোনা সংক্রমণ। সেখানে দু’জনের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়েছে।

দূরবর্তী প্রশান্ত মহাসাগরীয় এই দ্বীপপুঞ্জে হাওয়াই থেকে আগত দুইজনের করোনা পজিটিভ ফলাফল পাওয়া যায় মঙ্গলবার।

বিজ্ঞাপন

সেই দু’জনই মিলিটারী ফ্লাইটে করে সেখানে গেছেন, যদিও তারপরে তারা বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর থেকে আইসোলেশনে ছিলেন। ৩৫ বছর বয়সী নারী ও ৪৬ বছর বয়সী পুরুষ কোয়ারেন্টাইনে থাকায় তারা কোনো কমিউনিটি সংক্রমণ ছড়ানোর ঝুঁকিতে নেই।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তারা যেন অন্যদের সংস্পর্শে আসতে না পারে সেজন্য নিরাপত্তা পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

নিজেদের দুর্বল স্বাস্থ্যব্যবস্থার জন্য এই মহামারীর সময়ে প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপগুলো তাদের সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে। জুনে মার্শাল দ্বীপপুঞ্জ তাদের নিষেধাজ্ঞা শিথিল করে যুক্তরাষ্ট্রের মিলিটারী বেজের কর্মীদের প্রবেশাধিকার দেয়। তবে তাদের তিন সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয় সেই বেজেই।

কিরিবাটি, মাইক্রোনেসিয়া, নাউরু, পালাও, সামোয়া, টোঙ্গা, টুভালু এবং ভানুয়াতুতে এখনো কোনো করোনাসংক্রমণ নেই বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

আক্রান্ত দুজনেই কোনো উপসর্গবিহীন। সেখানকার সরকার জানিয়েছে, ব্যবসাবাণিজ্য ও সরকারি কাজ পরবর্তী নোটিশ না দেওয়া পর্যন্ত স্বাভাবিকভাবেই চলবে।  দুশ্চিন্তাগ্রস্ত হয়ে বাড়তি কেনাকাটা না করারও আহ্বান জানিয়েছেন তারা। তবে ২-৪ সপ্তাহের খাবার ও ওষুধের প্রস্তুতি নিয়ে রাখার কথাও বলেছে।

৫৫,০০০ বাসিন্দার মার্শাল দ্বীপ প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের সামান্য উত্তরে এক হাজারেরও বেশি দ্বীপপুঞ্জ নিয়ে গঠিত।