চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পার্লামেন্টে ‘আস্থা’ পেলেন টেরেসা

ব্রিটিশ পার্লামেন্টের আস্থা ভোটে উতরে গেলেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে।

পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউজ অব কমনসে তার পক্ষে ভোট দিয়েছেন ২০০ সংসদ সদস্য। আর বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন ১১৭ জন।

অর্থাৎ আস্থা ভোটে ৮৩টি ভোটে জিতেছেন তিনি। এর মধ্যে কনজারভেটিভ পার্টির ৬৩ শতাংশ এমপি টেরেসার পক্ষে এবং ৩৭ শতাংশ বিপক্ষে ভোট দেন।

এর ফলে আরও এক বছরের জন্য কনজারভেটিভ পার্টির সংসদীয় প্রধানের পদ নিশ্চিত করলেন মে।

Advertisement

ভোটে জয় নিশ্চিতের পর ডাউনিং স্ট্রিটে দেয়া ভাষণে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী জনগণ ‘যে ব্রেক্সিটের পক্ষে ভোট দিয়েছিল’ সেই ব্রেক্সিট বাস্তবায়নের অঙ্গীকার করেন। তবে এ-ও বলেন, যে এমপিরা আস্থা ভোটে তার বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন তাদের উদ্বেগগুলোর কথাও মন দিয়ে শুনেছেন তিনি।

সমর্থকরা দলকে এগিয়ে যেতে বললেও সমালোচক ও বিশ্লেষকদের মতে, এভাবে এক-তৃতীয়াংশ এমপির সমর্থন হারানো টেরেসা ও ব্রেক্সিট চুক্তির জন্য ‘বিধ্বংসী’ একটি বিষয়।

ইইউ থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়ার শর্ত নির্ধারণে ব্রেক্সিট চুক্তির খসড়া তৈরি নিয়েই সৃষ্টি হয়েছিল অনাস্থা। এ নিয়ে দু’জন ব্রেক্সিট বিষয়ক মন্ত্রীর পাশাপাশি পদত্যাগ করেছিলেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীও।

টেরেসা মের দল ব্রিটিশ কনজারভেটিভ পার্টির সদস্যরাই তার বিরুদ্ধে অনাস্থা আনেন। কনজারভেটিভ পার্টির ৪৮ সংসদ সদস্যের আবেদনের প্রেক্ষিতে এই গোপন ব্যালট অনুষ্ঠিত হয়।

ভোটে টিকে থাকার জন্য টেরেসা মের প্রয়োজন ছিল ১৫৯ ভোট। তবে ১৭৪ জন এমপি ভোটের আগেই মে’র পক্ষে ভোট দেবেন বলে জানিয়েছিলেন।