চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পাবনা পৌরসভার মেয়র পদে ভোট পুনরায় গণনার আদেশ স্থগিত

পাবনা সদর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদের ভোট পুনরায় গণনা করতে হাইকোর্টের দেয়া আদেশ স্থগিত করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত।

গত ১০ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টের দেয়া আদেশের বিরুদ্ধে মেয়র পদে ১২২ ভোটে নির্বাচিত শরীফ উদ্দিন প্রধানের করা আবেদনের শুনানি নিয়ে রোববার চেম্বার বিচারপতি মো. নূরুজ্জামান এই আদেশ দেন। সেই সাথে বিষয়টি আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে। আজ চেম্বার আদালতে শরীফ উদ্দিন প্রধানের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী প্রবীর নিয়োগী। আর অপর পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী আবদুল বাসেত মজুমদার ও আবদুল মতিন খসরু।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

ওই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী আলী মুর্তজা বিশ্বাস সনির করা রিটেরর শুনানি নিয়ে গত বুধবার বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ আদেশ দেন। আদালত তার আদেশে পাবনা সদর পৌরসভা নির্বাচনের ফলাফল স্থগিত করে মেয়র পদের ভোট ১ মাসের মধ্যে পুনরায় গণনার নির্দেশ দেন। হাইকোর্টে ওইদিন রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী শাহদীন মালিক ও নাহিদ সুলতানা যুথি। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নওরোজ মো. রাসেল চৌধুরী।

বিজ্ঞাপন

হাইকোর্টের আদেশের পর রিটের পক্ষের আইনজীবী নাহিদ সুলতানা যুথি চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, ‘এই নির্বাচনে মেয়র পদে শরীফ উদ্দিন প্রধানকে ১২২ ভোটে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। যদিও এই ভোটে মোট ১২শ ৬৫টি ভোট বাতিল হয়। তাই পুনরায় সকল ভোট গননা চেয়ে গত ৫ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টে রিট করেন আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী আলী মুর্তজা বিশ্বাস সনি।’

এর আগে পাবনা সদর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (স্বতন্ত্র) শরীফ উদ্দিন প্রধানকে বেসরকারিভাবে মেয়র পদে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়। গত ৭ ফেব্রুয়ারী তাকে বিজয়ী ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশিত হয়।

গত ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত ওই নির্বাচনে জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি ও স্বতন্ত্র প্রার্থী নারিকেল গাছ প্রতীকের শরীফ উদ্দিন প্রধান ২৭ হাজার ৯৬৯ ভোট পান। আর তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আলী মুর্তজা বিশ্বাস সনি পান ২৭ হাজার ৮৪৭ ভোট।