চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘পরিস্থিতি আরো খারাপ হবে’, বাড়ি বাড়ি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর চিঠি

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি ঠিক হওয়ার আগে সেটা আরো খারাপ হবে বলে সতর্কবার্তা দিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। বাড়ি বাড়ি পাঠানো লিখিত চিঠিতে এমন কথা বলেছেন তিনি।

কোভিড-১৯ পজিটিভ হয়ে বর্তমানে স্বেচ্ছায় আইসোলেশনে থাকা বরিস জনসন বলেন, দরকার হলে আরো কঠোর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে।

বিজ্ঞাপন

বাড়ি থেকে বের হওয়া ও স্বাস্থ্য তথ্য নিয়ে সরকারের আইনের বিস্তারিত নিয়ে সরকারি লিফলেট বিলি করা হয়, সেখানে যুক্ত ছিলো ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর পাঠানো চিঠিও।

যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ১০১৯ জন। শনিবারই সেখানে প্রাণ হারায় ২৬০ জন। আরো নিশ্চিত আক্রান্তের সংখ্যা ১৭,০৮৯ জন।

৩০ মিলিয়ন পরিবারের কাছে লিফলেট বিলি করতে খরচ হবে ৫.৮ মিলিয়ন পাউন্ড। চিঠিতে জনসন লিখেছেন, শুরু থেকেই আমাদের চাওয়া সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া। বৈজ্ঞানিক ও মেডিক্যাল পরামর্শ অনুযায়ী কোনো পদক্ষেপ সঠিক সময়ে নিতে আমরা মোটেও দ্বিধা করবো না।

বিজ্ঞাপন

গত সপ্তাহে যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসের বিস্তৃতি ঠেকাতে দুই জনের বেশি জনসমাগম নিষিদ্ধ করা হয়, নিত্যপ্রয়োজনীয় ছাড়া সব দোকান বন্ধ করা হয়।

জনসন বলেন, করোনা পরিস্থিতি ভালো হওয়ার আগে আরো খারাপ হবে। কিন্তু আমরা সঠিক প্রস্তুতি নিচ্ছি। যত বেশি আমরা নিয়ম মেনে চলবো তত কম প্রাণ হারাবে আর দ্রুতই স্বাভাবিক জীবন ফিরে পাবো।

পরবর্তী দুই তিন সপ্তাহে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি আরো খারাপ হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিশেষজ্ঞরা। চিঠিতে জনসন এই মহামারীকে ‘জাতীয় জরুরি সময়’ হিসেবে ঘোষণা করেন। আর তিনি আবারও সবাইকে ঘরে থাকতে বলেন। তাহলেই জীবন বাঁচবে।

এসব নিষেধাজ্ঞায় পরিবারের উপর অর্থনৈতিক প্রভাব পড়বে বলেও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী। তাই টেবিলে খাবার রাখার জন্য যা যা করা দরকার সরকার সব করবে। কর্মী ও ব্যবসায়ীদের বিলিয়ন পাউন্ড সহায়তা করা হবে।

লিফলেটের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর চিঠিতে হাত ধোয়ার নিয়ম, করোনাভাইরাসের লক্ষণ, বাড়ি থেকে বেরোনোর সরকারি নিয়মকানুন ও  ঝুঁকিপূর্ণ মানুষদের রক্ষার পরামর্শও দেওয়া হয়।