চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নেতৃত্বের চ্যালেঞ্জ নিতে তৈরি মুশফিক

ঢাকার জার্সিতে আগে কখনোই খেলা হয়নি মুশফিকুর রহিমের। বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপে এসেছে সুযোগ। বেক্সিমকো ঢাকার অধিনায়কও করা হয়েছে অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানকে। উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান হিসেবে তো বটেই, নেতৃত্বের চ্যালেঞ্জ নিতেও তৈরি মুশফিক। টুর্নামেন্ট শুরুর আগেরদিন সংবাদমাধ্যমকে জানালেন তার ভাবনার কথা।

‘ঢাকার হয়ে খেলার অভিজ্ঞতা এবারই প্রথম। সবারই স্বপ্ন থাকে এমন বড় বড় টিমে খেলার, স্বপ্ন থাকে বিশেষত ঢাকার হয়ে খেলার। আমি খুব ভাগ্যবান যে তারা এবার আমাকে নিয়েছে। চেষ্টা করবো সাধ্য অনুযায়ী প্রতিদান দেয়ার।’

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

‘অধিনায়কত্বের ব্যাপারটা অনেক সময় নির্ভর করে ফ্র্যাঞ্চাইজিরা কী চায়। প্রেসিডেন্টস কাপ বা অন্যান্য সময় বোর্ডের অধীনে তারা মনে করে তরুণ কিছু খেলোয়াড় আছে তাদের সুযোগ দিলে ভবিষ্যতে ভালো হতে পারে। এখন তারা মনে করেছে যে আমি হয়তো সঠিক ব্যক্তি যে গাইড করতে পারে।’

বিজ্ঞাপন

‘এই জন্যই নেয়া(নেতৃত্ব) আসলে। এটাও একটা চ্যালেঞ্জ ক্যাপ্টেন হিসেবে দলকে নাম্বার ওয়ান করা। সেই চ্যালেঞ্জ নেয়ার জন্য আমি প্রস্তুত। আমার টিমে যারা আছে তারা যদি সমর্থন করে, এটা (শিরোপা জয়) অসম্ভব না।’ বলেন মুশফিক।

ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে সবশেষ মুশফিক নেতৃত্ব দিয়েছিলেন ২০১৬ সালে। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) বরিশাল বুলসের অধিনায়ক করা হয়েছিল তাকে। ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকের আচরণে ক্ষুব্ধ মুশফিক পরে আর খেলেননি সে দলে।

বিপিএলে অন্য দলের অধিনায়কের দায়িত্ব নিতেও ছিল তার অনীহা। চার বছর পর কাঁধে তুলে নিয়েছেন নেতৃত্বভার। তিন সংস্করণেই বাংলাদেশ দলকে একসময় নেতৃত্ব দেয়া মুশফিকের নতুন শুরু কেমন হয় সেটিই এখন দেখার।

মঙ্গলবার দুপুর দেড়টায় শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের বঙ্গবন্ধু কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে মুশফিকের দল বেক্সিমকো ঢাকার প্রতিপক্ষ নাজমুল হোসেন শান্তর মিনিস্টার রাজশাহী।