চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নির্বাচনের ফলাফল নেতিবাচক হলেও মেনে নেবে আওয়ামী লীগ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয়ের আশাবাদ ব্যক্ত করে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান বলেছেন, নির্বাচনের ফলাফল নেতিবাচক হলেও মেনে নেবে আওয়ামী লীগ।

শনিবার ধানম‌ন্ডিতে আওয়ামী লী‌গের সভাপতির রাজ‌নৈ‌তিক কার্যাল‌য়ে সংবাদ স‌ম্মেল‌নে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তি‌নি এসব কথা ব‌লেন।

বিজ্ঞাপন

আবদুর রহমান বলেন: বিদেশি বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম ও সংস্থার জরিপ এবং প্রতিবেদনে আওয়ামী লীগের জয়ের বিষয় উঠে এসেছে। আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রে বিশ্বাসী। গণতন্ত্র-উন্নয়ন একে অপরের পরিপূরক। গণতন্ত্র না থাকলে উন্নয়ন হয় না। গণতন্ত্র ছিলো বলেই দেশের উন্নয়ন হয়েছে।

তিনি বলেন: আওয়ামী লীগ কোনো ধরনের সংঘাতের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না। আওয়ামী লীগ জনগণের সংগঠন। জনগণের সমর্থন নিয়েই সবসময় ক্ষমতা এসেছে। বাংলাদেশে কিছু বিক্ষিপ্ত ঘটনা ছাড়া দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন হতে চলেছে ৩০ ডিসেম্বর। এদিন প্রতিটি ব্যালটে নির্ধারণ করা হবে দেশের ভবিষ্যৎ।

জনগণের ব্যালটই হবে ক্ষমতা বদলের এক মাত্র হাতিয়ার, মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের এই নেতা আগামী নির্বাচনে জয়ের মধ্য দিয়ে চতুর্থবারের মতো নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী হবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

বিজ্ঞাপন

বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের সমালোচনা করে আবদুর রহমান বলেন: এদেশের জনগণ কোনো ব্যর্থ নেতৃত্বের সাথে থাকতে চায় না। তারা বিএনপি-জামায়াত-ঐক্যফ্রন্টের সন্ত্রাসী ও দুর্বৃত্তায়নের রাজনীতি থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। বিএনপি-জামায়াত অশুভ জোটের সহিংস হামলায় আহত আওয়ামী লীগের ৪৬১ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে এবং ১৮৯ টি নির্বাচনী অফিস ভাংচুর করেছে।

নির্বাচন নিয়ে যে কোনো ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় দেশবাসীকে সজাগ থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন: বিএনপি-জামায়াত-ঐক্যফ্রন্ট শেষ মুহূর্তে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে পারে। এটা তাদের অপকৌশল। তাই শেষ মুহূর্তের ফলাফল পর্যন্ত সকলকে অপেক্ষা করতে হবে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের।

রোববারের নির্বাচনে নৌকাকে বিজয়ী করার আহ্বান জানান তিনি।

ব্যাংককে ভারতের বিজেপি নেতা রাম মাধবের সঙ্গে বিএনপি নেতাদের বৈঠকের চেষ্টার বিষয়ে জানতে চাইলে আবদুর রহমান বলেন, ‘ক্ষমতার যাওয়ার জন্য বিএনপি নেতারা নানান জায়গায় দৌড়াদৌড়ি করছে। বিজেপি নেতা রাম মাধবের সাথে ব্যাংককে বৈঠক করতে চেয়েছিল, সাড়া পায়নি। তারা জনগণ বিবর্জিত হয়ে এখন প্রাসাদ ষড়যন্ত্রে মেতেছে।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন দলটির আরেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, আহমদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক, আহমদ হোসেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর, উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য রিয়াজুল কবির কাউসার এবং সহযোগী সংগঠনের নেতারা।

Bellow Post-Green View