চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নিজেদের নিরাপত্তায় পুলিশ নয়নকে গুলি করেছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

পুলিশ নিজেদের বাঁচাতে নিরাপত্তার স্বার্থে বরগুনায় রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ডের প্রধান আসামি নয়ন বন্ডকে গুলি করে থাকতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন।

মঙ্গলবার সিরডাপ মিলনায়তনে সম্প্রীতি বাংলাদেশের উদ্যোগে ‘শতবর্ষের পথে বঙ্গবন্ধু ও সম্প্রীতির বাংলাদেশ’ শিরোনামে গোলটেবিল বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন

রিফাতকে যে তিনজন নৃশংসভাবে হত্যা করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের ধরতে সার্বক্ষণিক লেগে ছিল উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা দুজনকে ধরেছি। আমি আগেই বলেছিলাম, আমরা সবাইকে ধরে ফেলব। তবে শেষ মুহূর্তে এই নয়ন শুধু পালিয়ে বেড়াচ্ছিল অবস্থান পরিবর্তন করছিল।’

বিজ্ঞাপন

মন্ত্রী বলেন, ‘তাই তার (নয়ন) সঙ্গে শেষ পর্যন্ত গুলিবিনিময় হয়েছে। তবে আমি এখনো জানি না কি কারণে তাকে গুলি করা হয়েছে। তবে এটা নিশ্চিত থাকেন, নিশ্চয়ই সে অস্ত্র দেখিয়েছিল, নিজেকে আড়াল করার চেষ্টা করেছিল। পুলিশ নিজের নিরাপত্তার জন্যই তার সঙ্গে গুলিবিনিময় করেছে।’

আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল আরো বলেন, আপনারা নিশ্চিন্তে থাকেন। কারা এর পিছনে ছিল। আমরা তদন্ত করে বের করব। আমরা চাই, এই ঘটনা যেন আর বাংলাদেশে না হয়।

এই ঘটনায় প্রভাবশালীদেরও বিচারের আওতায় আনা হবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, আপনারা দেখেছেন, কোনো প্রভাবশালীকে এমনকি আমাদের নির্বাচিত প্রতিনিধিকেও  আমরা ক্ষমা করছি না। এই ঘটনায় যত প্রভাবশালী লোকই জড়িত থাকুক না কেন, তাদেরকেও আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করার জন্য যা যা করার প্রয়োজন প্রধানমন্ত্রী সেগুলোই করছেন।

মঙ্গলবার ভোরে রিফাত হত্যা মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়। পুলিশের দাবি, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সদর উপজেলার পুরাকাটা এলাকায় নয়নকে গ্রেপ্তারে অভিযান চালায় তারা। সেসময় পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে নয়ন ও তার সহযোগীরা। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। গোলাগুলির এক পর্যায়ে নয়ন বন্ড বাহিনী পিছু হটে। পরে ঘটনাস্থলে তল্লাশি করে নয়ন বন্ডের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

Bellow Post-Green View