চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দুই সাংবাদিক হত্যাকারীর আত্মহত্যা

গুলি চালিয়ে মার্কিন এক টেলিভিশন সাংবাদিক ও তার ক্যামেরাম্যানকে হত্যায় দায়ী ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। ভেস্টার লি ফ্লানাগান (৪১) নামের ওই ব্যক্তিকে পুলিশ ধাওয়া করলে পালানোর এক পর্যায়ে নিজেই নিজেকে গুলি করেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ফ্লানাগান নিহত দুই সংবাদকর্মীর সঙ্গে একই টিভি চ্যানেলে কাজ করতেন। পুলিশের প্রাথমিক তদন্তের পর পেশাগত ক্ষোভ থেকে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে বলে জানানো হয়েছে।

পেশাগতভাবে ব্রাইস উইলিয়ামস নামে পরিচিত ফ্লানাগানের ট্যুইটার একাউন্ট থেকে জানা গেছে, চাকরি নিয়ে তার ক্ষোভ ছিল। তিনি সাংবাদিক ওয়ার্ড ও পার্কারের বিরুদ্ধে তাকে অভিযুক্ত করার অভিযোগ করেছিলেন।

স্থানীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফ্লানাগান ডব্লিউডিবিজে-সেভেন টিভি স্টেশনের বিরুদ্ধে বৈষম্যের অভিযোগ এনে মামলা করেছিলেন। তবে ২০১৪ সালের জুলাইয়ে এক বিচারক মামলাটি খারিজ করে দেন।

বিজ্ঞাপন

হত্যাকাণ্ডের আগের দিন সন্ধ্যায় সামাজিক মাধ্যমে ফ্লানাগানের কর্মকাণ্ড যাচাই করে হত্যাকাণ্ডটি পূর্ব-পরিকল্পিত ছিল এমন আভাসই পাওয়া যায় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

যুক্তরাষ্ট্রে একের পর এক বন্দুক হামলার ঘটনায় আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইন করার কথা বলা হচ্ছিলো। এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে হোয়াইট হাউজ আইনটি পাস করতে কংগ্রেসকে আহ্বান জানিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ার মনেটায় ডব্লিউডিবিজে সেভেন চ্যানেলের রিপোর্টার অ্যালিসন পার্কার সরসরি একটি অনুষ্ঠানে সাক্ষাৎকার নিচ্ছিলেন। সেময় কাছে থেকেই ১০টিরও বেশি গুলি করে বন্দুকধারী।

রিপোর্টার পার্কার ও ক্যামেরাম্যান অ্যাডাম এডওয়ার্ডের শরীরে বেশ কয়েকটি গুলি লাগে। সাক্ষাৎকারদাতা স্মিথ মাউন্টেইন লেক রিজিওনাল চেম্বার অফ কমার্সের ভিকি গার্ডনারও গুলিবিদ্ধ হন। তবে তার অবস্থা স্থিতিশীল।

বিজ্ঞাপন