চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

থাইল্যান্ড ভ্রমণকারীদের জন্য পালতোলা নৌকায় ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন

থাইল্যান্ড গমনকারীদের জন্য পালতোলা নৌকায় ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনের ব্যবস্থা করছে দেশটির সরকার। করোনা নেগেটিভ সনদ সঙ্গ করে থাইল্যান্ড গিয়েই থাকতে উঠতে সরকার নিয়ন্ত্রিত এই দুই মাস্তুলওয়ালা নৌকায়।

সোমবার থাই সরকার এক ঘোষণা জানায়, দেশটিতে কেউ ভ্রমণ করলে করোনা ভ্যাকসিন গ্রহণ করে যেতে হবে। অন্যথায় করোনা নেগেটিভ সনদ সঙ্গে নিয়ে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন কাটাতে হবে। আর তাদের আবাস হবে সাগরের পালতোলা নৌকা বা ছোট্ট জাহাজে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিবিসি বলছে, ইতোমধ্যে নতুন উদ্যোগটির ট্রায়ালও শুরু করে দিয়েছে থাইল্যান্ড। কমপক্ষে ১০০ নৌকা এরই মধ্যে নামানো হয়েছে।এখানে কোয়ারেন্টাইনে থাকা প্রত্যেকের কব্জিতে একটি করে স্মার্ট ডিভাইস পরিয়ে দেওয়া হবে, যেটি তাদের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করবে। সেই সাথে তাদের শরীরে তাপমাত্রা ও রক্তচাপ সম্পর্কে তথ্য দেবে।

বিজ্ঞাপন

ডিজিটাল এই ডিভাইসটি সমুদ্রের ১০ কিলোমিটার ব্যাসার্ধের মধ্যে তথ্য সরবরাহ করতে সক্ষম বলে জানিয়েছে থাই সরকার।

তারা প্রত্যাশা করছে যে, নতুন উদ্যোগের ফলে নৌশিল্প পর্যটনে  ১.৮ বিলিয়ন বাথ বা ৫৮ মিলিয়ন ডলার রাজস্ব জোগান দেবে।

মহামারী করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্ত পর্যটনশিল্প সমৃদ্ধ করতে এমন ভিন্নধর্মী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে থাইল্যান্ড।

গত বছরে মার্চ থেকে লকডাউনে চলে যায় থাইল্যান্ড। এরপর অক্টোবর থেকে ধীরে ধীরে বিদেশিদের জন্য পুনরায় খুলতে শুরু করে। গত জানুয়ারিতে গলফ মাঠে কোয়ারেন্টাইনের ব্যবস্থা করেছিলো দেশটি।

আগামী এপ্রিল বা মে থেকে পর্যটন শহরগুলোর হোটেল-রিসোর্টে কোয়ারেন্টাইনের ব্যবস্থা করার কথাও ভাবছে। তবে করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে ভ্রমণ করলে কাউকে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে না বলে নিশ্চিত করেছে থাই সরকার।