চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

টাঙ্গাইলে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আ.লীগ নেতাসহ ৫ জনকে কুপিয়ে জখম

টাঙ্গাইলের নাগরপুরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ নেতাসহ ৫ জনকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষ।

বুধবার দুপুরে উপজেলার সলিমাবাদ তেবাড়িয়া ইসলামিয়া উচ্চ বিদ্যালয় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

বিজ্ঞাপন

আহতরা হলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শাহীদুল ইসলাম অপু (৪৮), আওয়ামীলীগ নেতা রতন ভূঁইয়া (৪৮), সুমন খান (৩০), মাহমুদুল হক (৩২) ও সোলায়মান হোসেন বিপ্লব (৪২)।

বিজ্ঞাপন

স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শাহীদুল ইসলাম অপুসহ ৪ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদেরকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে রেফার্ড করে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, বুধবার দুপুরের দিকে আওয়ামী লীগ নেতা শাহীদুল ইসলাম অপু নেতা কর্মীদের নিয়ে তেবাড়িয়া স্কুলমাঠে স্থানীয় যুবলীগের সম্মেলনে যাচ্ছিলেন। অপু স্কুল গেটের সামনে পৌঁছলে আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা মন্টু গ্রুপের সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা তাদের উপর হামলা করে। সন্ত্রাসীরা এসময় অপুসহ ৫ জনকে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে জখম করে।

স্থানীয়রা আরো জানায় উপজেলার তেবাড়িয়ার গ্রামের মৃত. আমিনুল ইসলামের ছেলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শাহীদুল ইসলাম অপুর সাথে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে একই গ্রামের সলিমাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. আজাহারুল ইসলাম মন্টুর দীর্ঘদিন ধরে দ্বন্দ্ব চলে আসছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে এ ধরনের হামলার ঘটনা ঘটতে পারে বলে দাবী এলাকাবাসীর। হামলার পর সন্ত্রাসীরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তেবাড়িয়া বাজারে মহরা দিলে জনমনে আতংক দেখা দেয়। উত্তেজনা বিরাজ করায় ফের বড় ধরণের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছেন তারা।

নাগরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আলমচাঁদ জানান, সব ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এরাতে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা। এছাড়া হামলার ঘটনায় জড়িত দুষ্কৃতিকারীদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।