চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

জিহাদের মৃত্যু: ২০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ পেলেন মা-বাবা

রাজধানীর শাহজাহানপুর রেল কলোনিতে পাইপের ভেতরে পড়ে শিশু জিহাদের মৃত্যুর ঘটনায় তার পরিবার (মা-বাবা) কে ২০ লাখ টাকা ‘ক্ষতিপূরণ দিয়েছে’ ফায়ার সার্ভিস এবং রেলওয়ে।

এর মধ্যে ফায়ার সার্ভিস ১০ লাখ টাকার পে অর্ডার এবং রেলওয়ে ১০ লাখ টাকার চেক দিয়েছেন বলে জানীয়েছেন রিটকারী আইনজীবী ব্যারিস্টার আব্দুল হালিম।

তিনি জানান, চেক এবং পে অর্ডার জিহাদের পরিবারের একটি যৌথ অ্যাকাউন্টে জমা হয়েছে। তবে এখনো চেক বই জিহাদের বাবা-মা পাননি।

উত্তরা ব্যাংকের মতিঝিল শাখায় যৌথ অ্যাকাউন্টে গত বৃহস্পতিবার জমা করা চেক আর পে-অর্ডারের বিষয়ে ব্যাংক স্টেটমেন্ট চাওয়া হয়েছে। আগামি ১৪ আগস্ট এই মামলার পরবর্তী তারিখে ওই ব্যাংক স্টেটমেন্ট আদালতে হলফনামা আকারে দাখিল করা হবে বলে জানান এই আইনজীবী।

শিশু জিহাদের মৃত্যুর ঘটনায় তার পরিবারকে ২০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হাইকোর্টের রায় গত ৫ আগস্ট বহাল রাখেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

Advertisement

ক্ষতিপূরণ দিতে হাইকোর্টের দেয়া রায়ের বিরুদ্ধে করা লিভ টু আপিল খারিজ করে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার বিচারপতির আপিল বেঞ্চ রায় দেন।

আদালতে জিহাদের পরিবারের জন্য ক্ষতিপূরণের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী ব্যারিস্টার আব্দুল হালিম। আর বাংলাদেশ রেলওয়ের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী শহিদুল ইসলাম ও ফায়ার সার্ভিসের পক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

২০১৪ সালের ২৬ ডিসেম্বর রাজধানীর শাহজাহানপুর রেল কলোনিতে খোলা থাকা কয়েক’শ ফুট গভীর একটি নলকূপের পাইপের ভেতরে পড়ে মারা যায় চার বছরের শিশু জিহাদ।

এরপর ২০১৪ সালের ২৮ ডিসেম্বর জিহাদের পরিবারের জন্য ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশনা চেয়ে চিলড্রেন চ্যারিটি বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার আব্দুল হালিম একটি রিট করেন।

সে রিটের শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট জিহাদের পরিবারকে ২০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে রায় দেন। রায় প্রকাশের ৯০ দিনের মধ্যে রেলওয়ে ১০ লাখ টাকা ও ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষকে ১০ লাখ টাকা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়।

এরপর সে রায়ের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল করে রেলওয়ে ও ফায়ার সার্ভিস। সে লিভ টু আপিল খারিজ হওয়ার পর ক্ষতিপূরণ পেল জিহাদের পরিবার।