চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

গুরুর প্রশ্নের কোনো উত্তর জানা নেই ‘শিষ্য’ গার্দিওলার

ম্যাচ শেষে একজন আরেকজনকে বেশ সময় নিয়ে আলিঙ্গন করলেন ম্যানচেস্টার সিটি কোচ পেপ গার্দিওলা ও লিডস ইউনাইটেড কোচ মার্সেলো বিয়েলসা।

একে অন্যের প্রতি যে ভীষণ শ্রদ্ধা সেটা তখনই টের পাওয়া গেলো। সেসময়ই গার্দিওলাকে একটা প্রশ্ন করেছিলেন আর্জেন্টিনাতে ‘এল লোকো’ বা পাগলখ্যাত কোচ বিয়েলসা, যার উত্তরটা দিতে না পেরে বিব্রত বোধ করেছেন ফুটবল ট্যাকটিক্সে মাস্টারমাইন্ড হিসেবে পরিচিত স্প্যানিশ কোচ।

বিজ্ঞাপন

শনিবার রাতে লিডসের মাঠে খেলতে গিয়ে রাহিম স্টার্লিংয়ের ১৭ মিনিটের গোলে এগিয়ে ছিলো গার্দিওলার ম্যানসিটি। তবে নিজের মাঠে পয়েন্ট খোয়াতে হয়নি বিয়েলসার লিডসকেও। দ্বিতীয়ার্ধে রদ্রিগোর গোলে ঠিকই নিজেদের নামের এক পয়েন্ট যোগ করেছে বিয়েলসার হাত ধরে ১৬ বছর পর প্রিমিয়ার লিগে উঠে আসা দলটি।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

যখন বার্সেলোনার দায়িত্ব ছিলেন তখন সবার আগে বিয়েলসার কাছেই ছুটে গিয়েছিলেন এই কাতালোনিয়ান। আহরণ করেছিলেন ফুটবল বিষয়ে অসংখ্য অজানা জ্ঞান। কোচিং বিষয়ে তাকে পরিপক্ক করার কাজটা যে বিয়েলসার হাত ধরেই হয়েছিল সেটা বলতে কখনোই দ্বিধা করেন না সাবেক বার্সা ও বায়ার্ন কোচ। কোচিংয়ে তাই বর্ষীয়ান আর্জেন্টাইনকে নিজের গুরু মানেন পেপ।

ম্যাচ শেষ হতেই স্বাগতিক কোচের দিকে কর্মদন করতে এগিয়ে যান গার্দিওলা। শিষ্যের সঙ্গে আগ্রহ নিয়েই হাত মিলিয়েছেন লিডস কোচ। এসময় গার্দিওলাকে উদ্দেশ্য করে কিছু বলতেও দেখা যায়ে তাকে। পরে ম্যাচ শেষে ম্যানসিটি কোচই জানিয়েছেন যে তাকে কী বলেছেন তার গুরু।

‘আমাকে তিনি জিজ্ঞেস করলেন, ম্যাচ নিয়ে তোমার মতামত কি? আমি বললাম এক সেকেন্ডের মধ্যে আমার পক্ষে ম্যাচ বিশ্লেষণ করা সম্ভব না।’

‘সম্ভবত তিনি আমার চেয়ে বেশি চতুর, আমি ততটা না। ম্যাচ নিয়ে বিশ্লেষণ করতে আমার সময় লাগে। তবে আমি বলবো খেলাটা ভালো হয়েছে, ন্যায্য খেলা হয়েছে। ফলাফল যা হওয়ার তাই হয়েছে।’