চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনা ওয়ার্ডের ভেতরেই বিয়ের উৎসব

নিজের বিয়ের অনুষ্ঠানেই অংশ নেওয়া হয়ে ওঠেনি তার। বিয়ের মাত্র একদিন আগে হাসপাতালে ভর্তি হন ১৯ বছর বয়সী ফাজিয়া। ভীষণ মন খারাপের দিনগুলোকে একটু রঙিন করে তুলতে হাসপাতালেই আয়োজন করা হলো বিয়ে অনুষ্ঠানের।

হবু বৌ জ্বর নিয়ে কেরালার হাসপাতালে ভর্তি হলে তার শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়। পরে মাটনচেরি টাউন হলের সেই কোভিড সেন্টারে ঘটে এমন ঘটনা। বুধবার হাসপাতালে ভর্তি হন ফাজিয়া। তার পরের দিন নিয়াজের সঙ্গে বিয়ে হওয়ার কথা ছিলো তার।

বিজ্ঞাপন

ফাজিয়া বলেন, বিয়ের জন্য পোশাক আশাক নিতেই বাড়ির বাইরে যাচ্ছিলাম আমি, তখনই জানতে পারলাম আমি করোনা পজিটিভ।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

যেহেতু মুসলিম বিয়ের (নিকাহ) আয়োজনে বৌয়ের উপস্থিতি বাধ্যতামূলক নয়, তাই তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও তার পরিবার যেভাবে সব আয়োজন করেছিলো সেভাবেই সবকিছু সম্পন্ন করার পরিকল্পনা করে।

ফাজিয়া যখন বিয়ের পোশাক পরে কোভিড সেন্টারের ভেতরেই বসেছিলেন তখন পাশেই এক মসজিদে তার বিয়ে পড়ানো হচ্ছিলো। হবু বৌয়ের বিশেষ এই দিনটিকে করোনা হাসপাতালের ভেতরেই বিশেষ করে তোলেন হাসপাতালের অন্যান্য বসবাসকারীরা। আয়োজন করেন সারপ্রাইজ পার্টির।

জুনিয়র হেলথ ইন্সপেক্টর সুধীর বলেন, কেউই জানতো না এদিন তার বিয়ে। যদিও তার উপস্থিতি বাধ্যতামূলক নয়, তারপরও তার মন ভালো করে দেওয়ার জন্য পার্টির আয়োজন করে তারা। এমন মুহূর্ত তো আর বারবার আসবে না। রোগটি নিয়ে সবার ভয় দূর করার জন্য কোভিড ওয়ার্ডে যে কোনো আনন্দ আয়োজনের অনুমতি দেওয়া হয়। সবাই সময়টা উপভোগও করেছে।

ভিডিওতে দেখা যায় ফাজিয়াকে মাঝখানে রেখে অন্যান্যরা নাচছেন, আর বিস্তৃত হাসি রয়েছে ফাজিয়ার মুখে। পরে খাবার বিতরণের মধ্য দিয়ে আয়োজন শেষ হয়।