চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনাভাইরাস: বাহরাইনে সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা, বৈধ হওয়ার সুযোগ

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে বিশ্বজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিন বেড়েই চলেছে। মধ্যপ্রাচ্যেও করোনার বিস্তারে দিশেহারা পেট্রো ডলারের দেশগুলো।

এরমধ্যে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা প্রবাসী বাংলাদেশিরা করোনাভাইরাসের কারণে পড়েছেন নানাবিধ সমস্যায়। বিভিন্ন দেশ অবৈধ প্রবাসীদের বৈধ হওয়ার অথবা দেশে ফেরত যাবার সুযোগ করে দিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

কিছুদিন আগে কুয়েত সরকার তার দেশে অবৈধ প্রবাসী বাংলাদেশিদের আগামী ১৬ থেকে ২০ এপ্রিলের মধ্যে দেশে ফেরত সুযোগ করে দিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এরই ধারাবাহিকতায় গত ২ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) বাহরাইন সরকারের লেবার মার্কেট রেগুলেটরি অথরিটি (এল এম আর এ) অবৈধ প্রবাসীদের বৈধ হওয়ার সুযোগ দিয়েছে। পাশাপাশি যেসব প্রবাসী বৈধ হওয়ার সুযোগ নিতে পারবে না সেই সব অবৈধ প্রবাসীদের দেশে ফেরত যাওয়ার সুবিধা রয়েছে।

বাহরাইন সংবাদ সংস্থার বরাত দিয়ে স্থানীয় পত্রিকাগুলো জানিয়েছে, যেসব প্রবাসী দেশে ফেরত যেতে ইচ্ছুক তাদের কবে নাগাদ দেশে ফেরত পাঠানো হবে সে বিষয়ে আল্টিমেটাম এখনো না আসলেও এই বছরের শেষ দিকে অর্থাৎ ২০২০ সালের মধ্যে বৈধ হওয়ার সুযোগ দিয়েছে বাহরাইন সরকার।

বাহরাইনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোঃ নজরুল ইসলাম বৈধ হওয়ার খবরের সত্যতা স্বীকার করেছেন।

বিজ্ঞাপন

সূত্র বলছে, বাহরাইন সরকার কোন প্রবাসীকে জোর করে ধরে পাঠানোর কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। তারা কোন ধরনের জরিমানা ছাড়া বৈধ হওয়ার সুযোগ পাবেন এবং যেসব প্রবাসী‌ চলে যেতে চায় সেক্ষেত্রে কোন রকমের আর্থিক ক্ষতিপূরণ ছাড়াই অর্থাৎ জেল-জরিমানা ছাড়াই চলে যাওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

বাহরাইনে যে প্রবাসীর ওয়ার্ক পারমিট অর্থাৎ কাজ করার অনুমতিপত্র বাতিল করা হয়েছে অথবা মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেছে অথবা যেসব প্রবাসী কর্মী রানওয়েতে আছেন এসব প্রবাসী কর্মীরা বৈধ হওয়ার সুযোগ পাবেন। কিন্তু যেসব প্রবাসীদের বিরুদ্ধে বাহরাইন সরকারের আইন লঙ্ঘন করার কারণে কোর্টে বিচার চলছে, ভিজিট ভিসায় এসে অবৈধভাবে বসবাস করছেন, ট্রাভেল পারমিট যাদের নাই সেসব প্রবাসীরা সাধারণ ক্ষমার আওতায় পড়বেন না মর্মে জানানো হয়েছে।

এছাড়া বৈধ হওয়ার জন্য যে ফি নির্ধারণ করা হয়েছিল তাহা সম্পূর্ণ মওকুফ করা হয়েছে এবং ওয়ার্ক পারমিট এর বাৎসরিক খরচ ৪২৭ দিনার থেকে কমিয়ে একশত সাতষট্টি দিনার করা হয়েছে।

বাহরাইন সরকারের বৈধ হওয়ার সুযোগকে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছেন দীর্ঘদিন যাবৎ বাহরাইনে বসবাসকারী প্রবাসী আব্দুল জাকির সরকার। তিনি মনে করেন: মধ্যপ্রাচ্যের অন্যান্য দেশগুলো যে সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করছে এর চেয়ে অনেক গুণ বেশি এবং সুবিধা দিয়েছে বাহরাইন।

তিনি বলেন: বাহরাইন সরকার ইতোমধ্যে তিন মাসের ওয়ার্ক পারমিট ফি মওকুফ করাসহ বিভিন্ন ব্যবস্থা নিয়েছে প্রবাসীদের জন্য। এতে করে অবৈধ হয়ে যাওয়া প্রবাসীদের বৈধ হওয়ার সুযোগ পাবে খুব সহজেই।

তিনি এই মুহূর্তে বাহরাইন প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেশে ফেরত না গিয়ে বৈধ হওয়ার সুযোগ কাজে লাগানোর আহ্বান জানান।