চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ওয়েনস্টাইনের ছবিতে কাজ করায় ব্র্যাড পিটের সঙ্গে মনোমালিন্য হয়েছিল জোলির

হলিউডে ‘মিটু’ আন্দোলনে যেই নামটি সবচেয়ে বেশিবার এসেছে, তা হলো হার্ভে ওয়েনস্টেইন। একাধিক অভিনেত্রী এই প্রযোজকের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নিয়েছিলেন, যাদের মধ্যে অ্যাঞ্জেলিনা জোলি অন্যতম।

ওয়েনস্টাইন প্রসঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে আঞ্জেলিনা জোলি কথা বলেছিলেন। অভিনেত্রী জানিয়েছিলেন, তার বয়স যখন ২১ ছিল, তখন ‘প্লেইং বাই হার্ট’ ছবির শুটিং-এ ওয়েনস্টাইনের থাবা থেকে নিজেকে রক্ষা করেছিলেন তিনি। কিন্তু ২০০৯ এবং ২০১২ সালে ব্র্যাড পিট কাজ করেছিলেন এই প্রযোজকের সঙ্গে। বিষয়টি নিয়ে ব্র্যাড পিটের সঙ্গে মন কষাকষি হয়েছিল জোলির।

বিজ্ঞাপন

সম্প্রতি ‘উই গট দিস কভার্ড’-এ দেয়া সাক্ষাৎকারে জোলি জানিয়েছেন, অভিনেত্রীদেরকে তিনি আগেই সাবধান করে দিতেন ওয়েনস্টাইন সম্পর্কে। কোনো প্রজেক্টে ওয়েনস্টাইন থাকলে সেখানে কখনও নিজের নাম লেখাতেন না জোলি। কিন্তু ব্র্যাড পিট যখন ওয়েনস্টাইনের দুটি ছবিতে অভিনয় করলেন, তখন মন ভেঙে গিয়েছিল জোলির। বিষয়টি নিয়ে দুজনের ঝগড়া হয়েছিল।

জোলি আরও বলেন, ‘আমার মনে আছে, প্রথম স্বামীকে বিষয়টি জানিয়েছিলাম। তিনি বুঝতে পেরেছিলেন এবং অন্যদেরও সাবধান করতেন ওয়েনস্টাইনের ব্যাপারে। দ্য অ্যাভিয়েটর ছবির প্রস্তাব পেয়েছিলাম, কিন্তু ফিরিয়ে দিয়েছিলাম ওয়েনস্টাইনের কারণে। তার সঙ্গে আর কখনোই কাজ করিনি। কিন্তু আমার জন্য বিষয়টি কষ্টের হয়ে দাঁড়ায় যখন ব্র্যাড পিট কাজ করলো। বিষয়টি নিয়ে আমাদের মাঝে ঝামেলা হয়েছিল। কষ্ট পেয়েছিলাম ভীষণ।’

হলিউডের অন্যতম শক্তিশালী প্রযোজক হার্ভে উইনস্টেইন। তার বিরুদ্ধে সাবেক প্রযোজনা সহকারী মিমি হ্যালেইকে যৌন নির্যাতন এবং অভিনেত্রী জেসিকা মানকে ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। যৌন নির্যাতনের গুরুতর অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হয়ে বর্তমানে কারাগারে আছেন তিনি। -কইমই

বিজ্ঞাপন