চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

এটা আমার সংগীতজীবনের শ্রেষ্ঠ কাজ: সুবীর নন্দী

নজরুলসংগীতের অ্যালবাম ‘মোরা ছিনু একেলা’র মোড়ক খোলা নিয়ে আবেগ আপ্লুত হয়ে সংগীতশিল্পী সুবীর নন্দী বলেন, ‘আমরা গত দেড় বছর যাবৎ এর পেছনে অনেক শ্রম ‍দিয়েছি। সুর, তাল, লয়, অ্যালবামের কভার— সব বিষয় নিয়েই নিখুঁত ভাবে কাজ করেছি আমরা। এটা আমার সংগীতজীবনের শ্রেষ্ঠ কাজ।’ গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বেইলী রোডের ক্যাফে থার্টি থ্রি রেষ্টুরেন্টে অ্যালবামটির মোড়ক খোলা হয়। অ্যালবামটিতে সুবীর নন্দী ছাড়া আরও গান গেয়েছেন ছন্দা চক্রবর্তী।

সুবীর নন্দী জানালেন, আধুনিক গানের শিল্পী হিসেবে পরিচিত হলেও, তার গানের শুরু নজরুলসংগীত দিয়ে। স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন, ‘১৯৬৭ সালের দিকে তখন আমি সিলেটে ছিলাম, সেই সময়ে নজরুলসংগীত দিয়ে সংগীতজীবনের সুচনা করি।’

‘মোরা ছিনু একেলা’ অ্যালবামটি উৎসর্গ করা হয় সুধীন দাশকে। তিনি অ্যালবামটি প্রকাশ করতে এবং সার্বিক তত্ত্বাবধান করেছেন। অ্যালবামটিতে ১০টি গান রয়েছে। এর মধ্যে ৮টি গান একক এবং বাকি দুটি দ্বৈত কণ্ঠে গাওয়া। একক গানগুলোর মধ্যে দুজনের চারটি চারটি করে আটটি গান রয়েছে। অ্যালবামে সুবীর নন্দী গেয়েছেন ‘সন্ধ্যা গোধুলী লগনে কে’, ‘চোখের নেশার ভালোবাসা’সহ আরও দুটি একক গান। ছন্দা চক্রবর্তী গেয়েছেন ‘আনারকলি’, ‘সেদিন ছিল কি গোধুলী লগন’ সহ আরও দুটি গান। এছাড়া তারা যৌথভাবে গেয়েছেন ‘মোরা আর জনমে’ আর অ্যালবামের টাইটেল গান ‘মোরা ছিনু একেলা’।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নজরুল ইনস্টিটিউটের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান ইমিরেটস অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন সুধীন দাশ, কাজী নজরুল ইসলামের নাতনী খিলখিল কাজী, নজরুল ইনস্টিটিউটের নির্বাহী পরিচালক মো. আবদুর রাজ্জাক ভুঁইয়া এবং সরকারি সংগীত কলেজের অধ্যক্ষ ক্রিস্টি হেফাজ। অ্যালবামটি প্রকাশ করছে জি–সিরিজ।

শেয়ার করুন: