চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

একদিনের ভ্রমণে ঢাকার পাশে যেতে পারেন যেখানে

ব্যস্ত নগরজীবনে একটু অবসর বলতে আছে সাপ্তাহিক ছুটি। অনেকেই চান সাপ্তাহিক ছুটিতে কংক্রিটের এই নগরীতে বন্দি না থেকে প্রিয়জনের সঙ্গে মুক্ত বাতাসে মুগ্ধ সময় কাটাতে। কিন্তু ছুটি যে একদিন!

সমস্যা নেই! ঢাকা থেকে একদিনের সময় যেতে পারেন মানিগঞ্জের সাটুরিয়ার বালিয়াটি জমিদার বাড়ি। যেখানে গ্রামের ছোঁয়া সেখানেই প্রাণের ছোঁয়া। পুরাকীর্তি থেকে শুরু করে ইতিহাস সব অনুষঙ্গই রয়েছে এখানে।

প্রায় ১৫০ বছরের পুরনো বালিয়াটি জমিদারবাড়িটি এখন বালিয়াটি প্যালেস হিসেবে পরিচিতি পাচ্ছে। রয়্যাল প্যালেস বলতে যা বুঝায় এটা ঠিক যেন তাই।

ঢোকার মুখে টিকিট করে নিতে হয়। একটা ব্যাপার লক্ষ্য করার মত যে ঢোকার গেটের ঠিক ওপরে সিংহের মূর্তি। পাশাপাশি চারটি একটু দূরত্ব নিয়ে অবস্থান করছে। ভিতরে ঢোকার পর বাম পাশে সাইনবোর্ডে পাওয়া যাবে এ মহলের জীবন বৃত্তান্ত।

জমিদার বাড়িটি ৫.৮৮ একর জায়গা জুড়ে ঘেরা এবং পুরোটা জুড়েই উচু প্রাচীর। এখানে ইমারতগুলি ২০০টি কক্ষ ধারণ করে আছে।

উনিশ শতকে নির্মিত এ ইমারতগুলি। জমিদারদের পূর্বপুরুষ গোবিন্দ রাম সাহা ছিলেন একজন ধনাঢ্য লবণ ব্যবসায়ী। তার পরবর্তী বংশধরগণ এসবের নির্মাতা। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিলেন যথাক্রমে দাধী রাম, পণ্ডিত রাম, আনন্দ রাম এবং গোলাপ রাম।

বিজ্ঞাপন

চোখের সামনে বিশাল চারটি প্রাসাদ।পাশাপাশি চারটি, মাঝেরটায় প্রবেশের ব্যবস্থা থাকলেও আর কোনটায় নেই। নিচ তালায় প্রবেশ করলে দেখা যাবে চতুর্ভূজ এর মতো করে অনেকগুলো সিন্দুক সাজানো। ভিতরে দোতালায় যাওয়ার সিঁড়ি। উঠেই হাতের বামে পড়বে রং মহল। রংমহল এর মাঝে দাঁড়ালে দেখা যায় চার রকমের আয়না।পুরো রং মহলটি আয়না দিয়ে ভাগে ভাগে সাজানো।এখানে ছবি তোলা নিষেধ।

এর পর পাশের কক্ষে সেই আমলের আরাম কেদারা থেকে শুরু করে হারিকেন, দোয়াত, পালঙ্ক-কিছু কেটলি-তৈজস্পত্র চোখে পড়ার মত। রাইফেল রাখার স্থানও দেখা যাবে।

ভবনগুলোর সামনের প্রাচীর দেয়ালে রয়েছে চারটি প্রবেশ পথ। আর চারটি ভবনের পেছন দিকে আছে আরো চারটি ভবন। শানবাঁধানো ছয়টি ঘাট আছে এ পুকুরের চার পাশে। পুকুরের চারপাশের সারিবদ্ধ কক্ষগুলো ছিল পরিচারক, প্রহরী ও অন্যান্য কর্মচারীদের থাকার জন্য।

রবিবার পূর্ণদিবস এবং সোমবার অর্ধদিবস বন্ধ থাকে বালিয়াটি জমিদারবাড়ি। প্রবেশের টিকিট ১০ টাকা ও বিদেশী পর্যটকদের জন্য-১০০ টাকা।

যেভাবে যাবেন:

নবীনগর থেকে অথবা গাবতলী থেকে এস.বি লিঙ্ক এর বাস এ সরাসরি সাটুরিয়া। মানিকগঞ্জ জেলাসদর থেকে প্রতিজন ১০ টাকা ভাড়ায় অটোরিক্সা বা সিএনজি তে মানিকগঞ্জ জেলার সাটুরিয়া উপজেলার বালিয়াটি জমিদারবাড়ি । ঢাকা থেকে প্রায় পঞ্চাশ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিম দিকে এবং মানিকগঞ্জ জেলা শহর থেকে প্রায় আট কিলোমিটার পূর্ব দিকে এর অবস্থান।

শেয়ার করুন: