চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘উজানে মৃত্যু’ দিয়ে সরব হচ্ছে শিল্পকলা

করোনা ধাক্কা সামলে প্রায় সাত মাস পর শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) শিল্পকলার জাতীয় নাট্যশালা মঞ্চে পালাকারের নাটক প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে শিল্পকলার প্রাঙ্গন নাট্যকর্মী, নাট্যপ্রেমীদের জন্য উন্মুক্ত হচ্ছে। সরব হতে যাচ্ছে শিল্পকলা কেন্দ্রীক অঙ্গনগুলো। প্রথম দিনে পালাকার মঞ্চস্থ করবে সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহর ‘উজানে মৃত্যু’। নাটকটির নির্দেশনা দিয়েছেন শামীম সাগর।

বিষয়টিকে নিজেদের জন্য অত্যন্ত গর্ব এবং আনন্দের হিসেবে দেখছে নাট্যদল পালাকার। করোনার কারণে গত সাত মাসে মানুষ মানসিক ট্রমার মধ্য দিয়ে গেছে, পালাকার মনে করে থিয়েটারের মতন কর্মকাণ্ড মানুষের মানসিক প্রশান্তি এনে দিতে সক্ষম এবং ট্রমা থেকে বের করে আনতেও সাহায্য করে।

বিজ্ঞাপন

বর্তমানের ‘নিউ নর্মাল’ জীবনে মানুষ যত বেশি সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের সাথে যুক্ত থাকবে ততোই মানসিক সুস্থতা বাড়তে থাকবে বলেও মনে করেন পালাকারের শামীম সাগর।

প্রথম দিনেই পালাকার তাদের নাট্য প্রযোজনা নিয়ে দর্শকসম্মুখে আসার সুযোগ পেয়েছে, এতেও উচ্ছ্বসিত এই নাট্যদলটি। নির্দেশক বলেন, সৈয়দ ওয়ালিউল্লাহর ‘উজানে মৃত্যু’ হতাশার কথা বললেও পালাকারের ‘উজানে মৃত্যু’ হতাশা কাটিয়ে নতুন করে জীবনকে সম্মুখে চালিত করবার স্বপ্ন দেখায়। সেদিক থেকে এই সময়ে ‘উজানে মৃত্যু’র প্রদর্শনী সময়োপযোগী এবং যথাযথ বলে মনে করিছ।

এদিকে শিল্পকলা একাডেমিতে নাটক কিংবা অনুষ্ঠান দেখতে হলে মানতে হবে কিছু নিয়মকানুন। এরমধ্যে অবশ্যই আগত দর্শকদের বাধ্যতামূলক মাস্ক পরতে হবে।