চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘ইতিহাসের সবচেয়ে শক্তিশালী সেলফিতে মোদি-লি’

সামাজিক মাধ্যমে সরব নরেন্দ্র মোদি এবার সেলফি তুলে ইতিহাস গড়লেন। চীন সফররত ভারতের প্রধানমন্ত্রীর তোলা সেলফিতে ধরা পড়েছে দুই পরাশক্তির শীর্ষ নেতাদের হাস্যোজ্জ্বল মুখ। চীনের প্রধানমন্ত্রীর লি কেকিয়াং-এর সাথে তোলা মোদির এই সেলফিকে বিশ্বের ‘সবচেয়ে শক্তিশালী সেলফি’ বলেছে প্রভাবশালী ‘ফোর্বস’ ম্যাগাজিন।

বিশ্বের দুই-তৃতীয়াংশেরও বেশি মানুষের দু’ নেতার সেলফিকে ‘ইতিহাসের সবচেয়ে শক্তিশালী সেলফি’ বলাটাকে যৌক্তিক বলেই মনে করে আরেক প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম ‘ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল’।

বিশ্ব নেতাদের সেলফি তোলার ঘটনা নতুন না। তবে সেলফি তুলে সমালোচিত হয়েছিলেন স্বয়ং মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। ২০১৩ সালে নেলসন ম্যান্ডেলার স্মরণ অনুষ্ঠানে ডেনমার্কের রাষ্ট্রপ্রধানের সাথে ওবামা ও বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরুনের সেলফি নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছিল। কারণ অনুষ্ঠানের গাম্ভীর্যের সাথে তাদের সেলফিটি একেবারেই মানানসই ছিলো না।

তবে সামাজিক মাধ্যমে সরব মোদি সমালোচনার জন্ম না দিয়ে গড়লেন ইতিহাস। শুক্রবার চীনা প্রধানমন্ত্রীর সাথে বেইজিংয়ের টেম্পল অব হেভেন পরিদর্শনের এক ফাঁকে বের করেন স্মার্ট ফোন, আর টুক করে সেলফি তুলে পোস্ট করেন টুইটারসহ সামাজিক মাধ্যমে। ক্যাপশনে লেখেন ‘ইট’স সেলফি টাইম! থ্যাঙ্কস প্রিমিয়ার লি’।

ব্যস সাথে সাথে ৫ লাখেরও বেশি লাইক। লাইক দেয়াদের মধ্যে স্বয়ং ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গও রয়েছেন।

ওয়াল স্ট্রিটের মতে, সামাজিক মাধ্যম ও সেলফির গুরুত্ব বেশ ভালোই রপ্ত করেছেন মোদি। গত নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়া সফরেও অস্ট্রেলিয় প্রধানমন্ত্রী টনি অ্যাবটের সাথে সেলফি তুলে টুইটারে পোস্ট করেছিলেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী।

এমনকি ভারতের জাতীয় নির্বাচনের আগেও তার দল বিজেপি’র প্রচারণার অংশ ছিল ‘সেলফি উইথ মোদি’।

Bellow Post-Green View