চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ইউরোয় এবার ‘পারলে থাকো, নয়তো বিদায়’ পর্ব

শুরুতে ছিল ২৪ দল। দুই সপ্তাহের বুনো উল্লাস আর হাসি-কান্নার পর টিকে আছে ১৬ দল। ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে এবার নকআউটের হিসাব-কিতাব। নকআউট, মানে সোজা কথায় ‘পারলে থাকো, নয়তো বিদায়’ পর্ব!

শনিবার রাতের দুই ম্যাচ দিয়ে শুরু হচ্ছে যা। আমস্টারডামে বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় গ্যারেথ বেলের ওয়েলস ও ডেনমার্কের ম্যাচ দিয়ে লড়াই গড়াবে সেরা ষোলোর। সেরা আটের টিকেট কাটতে একইদিনে লন্ডনে রাত ১টায় ইতালির প্রতিপক্ষ অস্ট্রিয়া।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

আসরের ছয় গ্রুপের সেরা এক দল ইতালি, অস্ট্রিয়া রানার্সআপ হয়ে ষোলোয় এসেছে। ওয়েলস ও ডেনমার্ক সেখানে রানার্সআপ হয়ে নকআউটে এসেছে। এই পর্বের প্রথম ম্যাচটি তাদের। জয়ী দল চলতি টুর্নামেন্টে সবার আগে কোয়ার্টার নিশ্চিত করবে।

সেরা ষোলোয় অন্যগ্রুপ সেরা দলগুলো- বেলজিয়াম, নেদারল্যান্ডস, ইংল্যান্ড, সুইডেন ও ফ্রান্স। বাকি রানার্সআপ দল- ক্রোয়েশিয়া, স্পেন ও জার্মানি। সঙ্গী সেরা তৃতীয় চার দল- সুইজারল্যান্ড, চেক প্রজাতন্ত্র, ইউক্রেন এবং পর্তুগাল।

আমস্টারডামের লড়াই দিয়ে শুরু হয়ে গ্লাসগোতে ২৯ জুন সুইডেন ও ইউক্রেনের ম্যাচ দিয়ে মিলবে কোয়ার্টার ফাইনালের ৮ দল। মাঝে পরীক্ষা-লড়াই, হাসি-কান্নায় হবে আরও ছয়টি ম্যাচ।

যেখানে নেদারল্যান্ডসের প্রতিপক্ষ চেক রিপাবলিক। বেলজিয়াম খেলবে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর পর্তুগালের বিপক্ষে। গত বিশ্বকাপের রানার্সআপ ক্রোয়েশিয়ার পরীক্ষা নেবে স্পেন। বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সের পরীক্ষা সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে। ফেভারিট ইংল্যান্ডের প্রতিপক্ষ অলটাইম ফেভারিট জার্মানি।

বিজ্ঞাপন

দুর্দান্ত সব প্রতিপক্ষের বিপক্ষে উতরে আটের টিকেট কাটতে দুর্দান্ত সব ফুটবল লড়াই উপহার দিতে হবে। ফ্রান্স কি পারলে ২০১৮ বিশ্বকাপের ট্রফির পাশে ইউরোর ট্রফি রাখতে? ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন পর্তুগাল কি পারবে স্পেনের (২০০৮ ও ২০১২) পর দ্বিতীয় দল হিসেবে দুটি ইউরো জিততে? অনেক প্রশ্নের উত্তর মিলবে সামনে।

গ্রুপ ‘এ’তে দ্বিতীয় দল হয়ে ষোলোয় এসেছে ওয়েলস। যারা গ্রুপপর্বে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ১-১ গোলের ড্রয়ে শুরু করে তুরস্কের বিপক্ষে ২-০ গোলের জয় ও ইতালির বিপক্ষে ১-০ ব্যবধানে হেরে শেষ করেছে। ওয়েলসের হাতে আছে গ্যারেথ বেল, অ্যারন রামসে, কেউফার মোরে, ড্যানি ওয়ার্ড,ড্যানিয়েল জেমস, কনোর রবার্টসের মতো খেলোয়াড়।

ডেনমার্ক সেখানে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বড় ধাক্কার পর ঘুরে দাঁড়িয়েছে। তাদের অন্যতম তারকা ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন ম্যাচের মাঝে হৃদরোগ সমস্যা নিয়ে মুখ থুবড়ে পড়ে মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে এসেছেন। ফিনল্যান্ডের বিপক্ষে সেই ম্যাচে ১-০তে হারে ডেনিশরা। পরের ম্যাচে বেলজিয়ামের বিপক্ষে হেরে বসে, ২-১এ।

টিকে থাকতে শেষ ম্যাচে জিততেই হতো, সঙ্গে বড় ব্যবধানে। এমন সমীকরণের মুখে ডেনিশরা ৪-১ গোলে উড়িয়ে দেয় রাশিয়াকে। এবার তাদের ওয়েলস পরীক্ষা। ইউসেফ পৌলসেন, মার্টিন ব্র্যাথওয়েট, আন্দ্রেয়াস ক্রিস্টেনসেন, সিমন কায়ের, পিয়েরে-এমিলে হজবার্গ, থমাস ডেলানে, মিকেল ড্যামসগার্ডরা সেটায় কতটুকু উতরে যেতে পারেন তা দেখার আর মাত্র কয়েকঘণ্টার অপেক্ষা।

গ্রুপ ‘এ’তে ইতালি সেখানে তিনে তিন জয়ের পথে টুর্নামেন্টের প্রথম দল হিসেবে সেরা ষোলো নিশ্চিত করেছে। তুরস্ককে ৩-০, সুইজারল্যান্ডকে একই ব্যবধানে ও ওয়েলসকে ১-০তে হারিয়ে এসেছে। জর্জিনহো, ম্যানুয়েল লোকাতেল্লি, নিকোলে বেরেল্লাদের সামনে সুযোগ জয়ের ধারা ধরে রাখার।

অস্ট্রিয়া গ্রুপ ‘সি’ থেকে দ্বিতীয় হয়ে ষোলোয় এসেছে। ইউক্রেন, নর্থ মেসিডোনিয়াকে টপকে নেদারল্যান্ডসের পরে থেকে গ্রুপপর্ব শেষ করেছে। নর্থ মেসিডোনিয়ার বিপক্ষে ৩-১ গোলের জয়ের সঙ্গে ইউক্রেনকে ১-০তে হারানোর টাটকা স্মৃতি তাদের সঙ্গী, হার শুধু ডাচদের বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে।

অস্ট্রিয়া দলের বড় নাম ডেভিড আলাবা, সঙ্গে মার্টিন হিনন্ট্রেগ্রের, মার্সেল সেবিটজার, ক্রিস্টোফ বেউমগার্টনেররা যদি জ্বলে উঠতে পারেন, ইতালিকে ভালো পরীক্ষাতেই ফেলতে পারবে আসরের সেরা চমক অস্ট্রিয়া।