চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Nagod

রোনালদোকে বিদায় করে আরামে ঘুমিয়েছেন টেন হাগ

মৌসুমের শুরু থেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কোচ এরিক টেন হাগের সঙ্গে বনিবনা হচ্ছিল না ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর। যার জেরে কাতার বিশ্বকাপ শুরুর সপ্তাহখানেক আগে বিস্ফোরক এক সাক্ষাৎকার দেন পর্তুগিজ মহাতারকা। তার আগেই দল থেকে বাদ পড়তে থাকেন সিআর সেভেন, বিশ্বকাপের মাঝে চুক্তিরও ইতি টানতে হয় মহাতারকা ফরোয়ার্ডকে। ওদিকে রোনালদোকে বিদায় করে বেশ আরামেই ঘুমিয়েছেন কোচ টেন হাগ।

বিশ্বকাপের আগে ইউনাইটেডের ব্যাপারে পিয়ার্স মরগানকে বিশাল সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন রোনালদো। কোচ এরিক টেন হাগ, ওয়েন রুনি, গ্যারি নেভিলদের নিয়ে করেছিলেন বিস্ফোরক মন্তব্য। সেসময় কথা দৈর্ঘ্য-প্রস্থ ছাপিয়ে অনেকদূর জল গড়িয়েছিল। সবশেষে সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা আসে ইউনাইটেডের পক্ষ থেকে।

ওল্ড ট্রাফোর্ডে একসময় ইউনাইটেডের কঠিন সময়ে দুর্দান্ত সব ম্যাচ জেতাতেন পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী। ইংলিশ ক্লাবটির হয়ে তিনবার প্রিমিয়ার লিগ, একবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগসহ ৯টি শিরোপা জিতেছেন। সেই রোনালদোর সঙ্গে সম্পর্কের টানাপোড়ন শুরু হয় ইউনাইটেডের। রেড ডেভিলদের ডেরায় দ্বিতীয়বার এসে টেন হাগের সময়েই ঘটে সবকিছু।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে লিভারপুলের বিপক্ষে ম্যাচের আগে রোববার সংবাদ সম্মেলনে রোনালদোকে দল থেকে বাদ দেয়ার ব্যাপারে বলেছেন টেন হাগ, ‘দলের পরিণতি আমি বুঝতে পারছিলাম। এমন সিদ্ধান্তের পেছনে যথেষ্ট কারণও ছিল। তবে এটি নেতিবাচকও হতে পারত। ফুটবলে সবই সম্ভব। আমি আসলে উদ্বিগ্ন ছিলাম না। এমনকি ভালো ঘুমিয়েছিলামও ওই দিনগুলোতে। ক্লাব এবং দলের স্বার্থে সিদ্ধান্তগুলো নিতে হয়েছে।’

‘এসব আমার কাজ ও দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। যা আমাকেই করতে হবে। আমাকে স্বল্পমেয়াদী চিন্তা করলে হবে না, দীর্ঘমেয়াদী সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে। সবসময় কৌশলগতভাবে চিন্তা করেছি।’

মৌসুমের শুরুতে ফর্মে না থেকেও ইউনাইটেডের চিত্র পাল্টে যায় বিশ্বকাপ বিরতির পর। রোনালদো চলে যাওয়ার পর ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগ মিলিয়ে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি ৩০ ম্যাচে জয় পেয়েছে টেন হাগের দল। নিউক্যাসলকে হারিয়ে ৬ বছর পর জিতেছে কারবাও কাপ। এমনকি শিরোপা লড়াইয়ে এফএ কাপের কোয়ার্টার ফাইনাল ও ইউরোপা লিগের শেষ ষোলোতে পোঁছে গেছে। ডাচ কোচ হাগের অধীনে প্রিমিয়ার লিগে তৃতীয় স্থানে রয়েছে রেড ডেভিলরা।

Labaid
BSH
Bellow Post-Green View