চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কমনওয়েলথ গেমস ভারোত্তোলনে পঞ্চম তাজ

বার্মিংহামের কমনওয়েলথ গেমসে দ্বিতীয় দিনটা ভালো কাটেনি বাংলাদেশের। পাঁচটি ইভেন্টে অংশ নিয়ে কোনোটোতেই পদক জিততে পারেনি খেলোয়াড়রা। তবে সব অপ্রাপ্তির মাঝে আশার আলো আশিকুর রহমান তাজ। ভারোত্তোলন বিভাগে ৫৫ কেজি ওজন শ্রেণিতে পঞ্চম হয়েছেন বাংলাদেশের এ খেলোয়াড়।

শনিবার ভারোত্তোলন ইভেন্টের স্ন্যাচে ৯৩ এবং ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ১১৮ কেজি মিলিয়ে মোট ২১১ কেজি তোলেন আশিকুর। সব মিলিয়ে ২৪৯ কেজি তুলে গেমসের রেকর্ড গড়ে সোনা জিতেছেন মালয়েশিয়ার মোহামাদ অনিক বিন কাসদান।

Reneta June

কোনো পদক না জিতে পঞ্চম হওয়াতেও প্রাপ্তি আছে তাজের। কারণ যেকোনো প্রতিযোগিতায় ভারোত্তোলনে ৫৫ কেজি ওজন শ্রেনিতে এটিই বাংলাদেশের সর্বোচ্চ অর্জন। ২০০৬ সালে মেলবোর্নের ৫৬ কেজি ওজন শ্রেণিতে বাংলাদেশের একরামুল হক স্ন্যাচ ও ক্লিন অ্যান্ড জার্ক মিলিয়ে ২১৮ কেজি তুলেছিলেন। সেবার তিনি ১৪ জন প্রতিযোগীর মধ্যে অষ্টম হয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন

সব ওজন শ্রেণির ক্ষেত্রেও এটি রেকর্ড। হামিদুল ইসলাম, মোল্লা সাবিরা সুলতানা ও মাবিয়া আক্তার সীমান্ত এর আগে সর্বোচ্চ ষষ্ঠ স্থান পেয়েছিলেন।

দ্বিতীয় দিনে আরও চারটি ইভেন্টে অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ। এর মধ্যে টেনিসের দলগত ইভেন্টে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ দল। একই ইভেন্টের সিঙ্গেল এবং ডাবলসের গ্রুপ পর্ব থেকেই বাদ পড়েছেন বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা।

সাঁতারে বরাবরের মতোই হতাশ করেছেন বাংলাদেশের সুইমাররা। ৫০ মিটার ফ্রিস্টাইলে ৬৮ জনের মধ্যে ৬১ তম হয়েছেন সোনিয়া খাতুন। ১০০ মিটার ব্রেস্টস্ট্রোকে ৩৬ জনের মধ্যে ৩০ তম সুকুমার রাজবংশী।

মেয়েদের ৪৯ কেজি ভারোত্তলেনে ১১ জনের মধ্যে দশম হয়েছেন মারজিয়া আক্তার।