চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Nagod

‘শিং নেই তবু নাম তার সিংহ’, কিশোরের জাদুতে আজও আচ্ছন্ন ভক্তরা

Fresh Add Mobile
বিজ্ঞাপন

কিশোর কুমার সম্পর্কে সত্যজিৎ রায় বলেছিলেন, এমন গায়ক আর হবে না। এত সাবলীলভাবে সব রকম গান আর কেউ কখনও গাইতে পারবে না। গতকাল (৪ আগস্ট) ছিল কিশোর কুমারের জন্মদিন। বেঁচে থাকলে তার বয়স হতো ৯৪। কিশোর কুমারের মৃত্যুর ৩৬ বছর কেটে গেছে, এত বছরেও তার জনপ্রিয়তা একটুও কমেনি।

বিজ্ঞাপন

কিশোর কুমার এখনও গানপ্রেমীদের চর্চায়। কেউ তার গায়কীর অনুকরণ করে দিনরাত চর্চা করেন। কেউ মন দিয়ে তার ইয়ার্ডলিং শুনে শুনে শেখার চেষ্টা করেন, কেউ এক স্বর থেকে অন্য স্বরে গলা স্থির রেখে যাওয়ার প্রবল চেষ্টা চালিয়ে যান।

ছোটবেলায় কিশোর খালি গলায় সায়গলের গান গাইতেন। চোখ বন্ধ করে শুনলে নাকি মনে হতো সায়গলই গাইছেন। তখনও তিনি গান শেখেননি। ভালো লাগে, তাই গান করেন।

দিলীপ কুমার থেকে দেব আনন্দ, রাজেশ খান্না থেকে অমিতাভ, অনিল কাপুর থেকে আমির খান, বলিউডের ৪ প্রজন্মের তারকাদের প্লেব্যাক করার নজির গড়েছেন কিশোর কুমার। ড্যানি কে-র গান শুনে তিনি ইয়ার্ডলিং করার অনুপ্রেরণা পেয়েছিলেন বলে শোনা যায়। ভারতীয় সংগীতে সেই ইয়ার্ডলিংকে কিশোর অন্যমাত্রায় পৌঁছে দিয়েছেন। ‘শিং নেই তবু নাম তার সিংহ’ তার ঐতিহাসিক প্রয়োগ।

বিজ্ঞাপন
Reneta April 2023

‘শিং নেই তবু নাম তার সিংহ’ বিখ্যাত এই গান কিংবদন্তি গায়ক কিশোর কুমার অভিনীত ‘লুকোচুরি’ ছবির। ছবির গল্প ছিল দুই যমজ ভাইকে নিয়ে। দুই ভাইয়ের চরিত্রেই অনবদ্য অভিনয় করেছিলেন কিশোর কুমার। আর ছবির এক দৃশ্যে ‘শিং নেই তবু নাম তার সিংহ’ গানে নেচে-গেয়ে মাত করেছিলেন তিনি।

দাদা অশোক কুমারের অনুপ্রেরণায় ১৯৪৬ সালে জিদ্দি ছবিতে অভিনয় শুরু দিয়ে চলচ্চিত্রে প্রবেশ করেন। কিশোরের ব্যক্তিত্বে ছিল রসবোধ। সিনেমার কৌতুক দৃশ্যে তাই মনে হতো না তিনি অভিনয় করছেন। তিনি প্রায় ৮০টি ছবিতে অভিনয় করেছেন, যার মধ্যে এক ডজন হিট ছবি রয়েছে। তার মাঝে হাফ টিকিট, লুকোচুরি, চলতি কা নাম গাড়ি, নকরি, নয়া আন্দাজ, পরোসন, দূর গগন কি ছাও মে, পেয়ার কিয়ে যা, মমতা কি ছাও মে-র মতো চলচ্চিত্র রয়েছে।

৪০ বছরের ক্যারিয়ারে ১২৪৫ ছবিতে প্লেব্যাক করেন তিনি। বলিউডের সমস্ত প্রখ্যাত সুরকারদের সঙ্গে তিনি কাজ করেছেন। তবে শচীন দেব বর্মনের সঙ্গে তার প্রথম জুটি জনপ্রিয়তার শিখর ছোঁয়। এরপর শচীন পুত্র রাহুল দেব আর কিশোর কুমার জুটি ভারতীয় শ্রোতাদের মনে চিরস্থায়ী জায়গা করে নেয়।

বাংলার শ্রোতাকে কখনও বিমুখ করেননি কিশোর। রবীন্দ্রসংগীত গেয়েছেন সত্যজিৎ রায়ের চারুলতা ছবিতে। এছাড়াও একাধিক বাংলা ছবিতে তিনি প্লেব্যাক গেয়েছেন। বাঙালির সবচেয়ে বড় পাওনা ছিল কিশোরের গাওয়া পূজার গান। শচীন দেব, আর ডি বর্মন, সলিল চৌধুরী, সুধীন দাশগুপ্ত প্রমুখ সুরকারদের সুরে কিশোরের গাওয়া গানগুলি এখনও শারদোৎসবের অবিচ্ছেদ্য অংশ।

বিজ্ঞাপন
Bellow Post-Green View