চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Partex Group

ছবির মেরিট থাকলে দর্শক বাড়বে, হল বাড়বে: জয়া

দর্শকের সাথে বসে 'বিউটি সার্কাস' এর প্রথম শো দেখার পর জয়া আহসান

Nagod
Bkash July

১৯টি সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে জয়া আহসান অভিনীত ‘বিউটি সার্কাস’। শুক্রবার মুক্তি পাওয়া এই ছবিটি দর্শকদের সঙ্গে উপভোগ করতে হলে হলে ছুটছেন দুই বাংলার জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। তবে হল কম পেলেও আক্ষেপ নেই জয়ার।

তার কথা, ছবির মেরিট থাকলে দর্শক বাড়বে, হল বাড়বে। ছবির সবচেয়ে বড় প্রচার করে দর্শক। ভালো লাগলে তারা মুখে মুখে প্রচার করে দেয়। আমি নিশ্চিত ‘বিউটি সার্কাস’র ক্ষেত্রে তাই হবে।

Sarkas

জয়া আহসান বলেন, বিউটি সার্কাস নারী শক্তি, প্রতিশোধ ও ভালোবাসার গল্প। এই ধরনের গল্পের ছবি আমাদের এখানে আগে হয়নি। দর্শক দেখে হতাশ হবে না। দেড় বছর পর আমার ছবি মুক্তি পেল। যারা আমাকে ও আমার কাজকে পছন্দ করেন তারা অবশ্যই হলে এসে বিউটি সার্কাস দেখবেন।

শুক্রবার সকাল ১১টার শো-তে রাজধানীর স্টার সিনেপ্লেক্সে দর্শকের সঙ্গে ‘বিউটি সার্কাস’ উপভোগ করেন জয়া আহসান। শো শেষে যখন তিনি হল থেকে বের হচ্ছিলেন, দর্শকরাই হাত উঁচু করে বলছিল বিউটিদের জয় হোক, বিউটি সার্কাসের জয় হয়েছে। অসাধারণ ছবি ‘বিউটি সার্কাস’।

এসব দর্শকের উপর পূর্ণ বিশ্বাস আছে উল্লেখ করে জয়া আহসান বলেন, জোর করে ছবি হলে রাখা যায় না। দর্শকের যেটা ভালো লাগবে সেটাই দেখবে।

স্টার সিনেপ্লেক্সের বসুন্ধরা শাখায় প্রথম শো দেখতে উপস্থিত হন নাটক-সিনেমার নামিদামি প্রযোজক, নির্মাতা, অভিনেতা ও অভিনেত্রী’সহ বিউটি সার্কাস ছবি সংশ্লিষ্টরা। টিকিট কাউন্টারে সাধারণ দর্শকের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। আগেই বিউটি সার্কাসের বড় একটা অংশের টিকিট বিক্রি হয়েছে অনলাইনে।

চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন, ঈদের পর সিনেমা হলে দর্শকদের আসার ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে ‘বিউটি সার্কাস’ ভূমিকা রাখবে। পাশাপাশি জয়া আহসানের অনবদ্য অভিনয় দেখতে সিনেপ্লেক্সগুলোতে দর্শকদের ভিড় থাকতে পারে। যা প্রথম দিনেই কিছুটা আন্দাজ করা গেছে।

১৯ সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছেন গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী সার্কাস, জাদুর পাশাপাশি সম্পর্ক, সমাজ ও প্রতিশোধের গল্পে নির্মিত ‘বিউটি সার্কাস’। ২০১৪-১৫ সালে সরকারি অনুদানের পাশাপাশি ইমপ্রেস টেলিফিল্ম প্রযোজিত ‘বিউটি সার্কাস’ পরিচালনা করেছেন মাহমুদ দিদার।

জয়া ছাড়াও অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক ফেরদৌস আহমেদ, তৌকির আহমেদ, এবিএম সুমন, শতাব্দী ওয়াদুদ, গাজী রাকায়েত, হুমায়ূন সাধু, মানিসা অর্চি প্রমুখ।

BSH
Bellow Post-Green View