চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Partex Group

সঙ্গিনীকে নগ্ন করে হোটেল থেকে বের করে দেন গিগস

Nagod
Bkash July

দীর্ঘ ৬৪ বছর পর ওয়েলসকে বিশ্বকাপের মঞ্চে তুলেছেন রায়ান গিগস। তবুও থাকতে পারেননি দলের সাথে। বিতর্কিত কাণ্ডে জড়িয়ে কোচিং থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন আগেই। এবার অভিযোগ প্রাক্তন সঙ্গিনীকে লাঞ্ছিত করা। আদলতেও উপস্থিত হতে হচ্ছে। যেখানে গিগস সব অস্বীকার করলেও বোমা ফাটিয়েছেন তার প্রাক্তন কেট গ্রেভিল।

মঙ্গলবার ম্যানচেস্টার ক্রাউন কোর্টে দেয়া গিগসের বক্তব্যের বিপরীতে গোয়েন্দাদের কাছে সাক্ষাৎকারে রোমহর্ষক এক ঘটনা তুলে ধরেছেন গ্রেভিল। গিগসকে ‘আত্মার বন্ধু’ বলে অবহিত করে জানান, কীভাবে গিগসের কাছে অপমানিত হয়েছিলেন।

Sarkas

‘তিনি কোথাও থেকে আমার কাছে এসে সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কাঁধ চেপে ধরেন। এরপর মাথা দিয়ে ইচ্ছাকৃতভাবে মুখে আঘাত করেন, যার ফলে আমার ঠোঁট ফুলে ও ক্ষত হয়ে যায়। তার পুরো জীবন মিথ্যায় পূর্ণ। একবার হোটেল কক্ষে অন্য নারীকে মেসেজ করার সময় আমার মুখোমুখি হলে মুখ লুকান। পরে এ নিয়ে কথা উঠলে আমাকে ধরে সব জিনিসপত্র করিডোরে ফেলে আমাকে নগ্ন অবস্থায় হোটেল থেকে বের করে দেন।’

‘তার ক্রিয়াকলাপের উপর আমার কোনো নিয়ন্ত্রণ ছিল না। কেবল অসহায় অনুভব করছিলাম। একই সাথে বিব্রত ও অপমানিত। পরে সেই নগ্ন ছবি পাঠিয়ে সে আমাকে নানা সময় ব্ল্যাকমেল ও হুমকি দিয়েছে। আমাকে তার সমস্ত মন্দ প্রয়োজনে ব্যবহার করেছে।’

এসময় গ্রেভিল আরও একটি ঘটনা বর্ণনা করেন যা ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে দুবাই ভ্রমণের সময় ঘটেছিল।

‘এক রাতে মদ্যপানের পরে, গিগস আমাকে চলে যেতে বলেন, এরপর আমার ব্যাগ টেনে ধরে পথ আগলে ধরার সময় পড়ে যান ও নিজেকে আহত করেন। সেসময় তিনি আমাকে খুব একা ও বিচ্ছিন্ন অনুভব করিয়েছিলেন। একটা সময় পর বুঝলাম আমি যে গিগসকে চিনি এটা আসলে সে ছিল না। সে তার সাবেক স্ত্রীর সাথে বিচ্ছেদ করবে না। আবুধাবিতে যাওয়ার আগে তাকে দূরে সরে যাওয়ার জন্য বলেছিলাম।’

আদালতে যদিও গিগস এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তার আইনজীবী জানিয়েছেন, গিগস কখনোই সীমা অতিক্রম করতেন না। আদালতের বিচারকার্য আগামী ১০ দিন চলতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

BSH
Bellow Post-Green View