চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Partex Group

ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী সানা ম্যারিনের পার্টি ভিডিও নিয়ে বিতর্ক

Nagod
Bkash July

সম্প্রতি ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী সানা ম্যারিনকে নিয়ে নতুন করে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। তার একটি ব্যক্তিগত ভিডিও সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া। বন্ধুদের সঙ্গে পার্টি করার সেই ভিডিও-ই বিতর্কের কারণ।

কী দেখা গিয়েছে সেই ভিডিও? সেখানে দেখা যাচ্ছে সানা ম্যারিন তার বন্ধুদের সঙ্গে পার্টি করছেন। বন্ধুদের মধ্যে রয়েছেন ফিনল্যান্ডের বেশ কয়েক জন নামজাদা তারকাও। তাদের সঙ্গে গান গাইছেন এবং নাচছেন সানা। সমস্যা সেই নাচ বা গান নিয়ে নয়। তার কাণ্ডকারখানা দেখে বিরোধীরা দাবি তুলেছেন, সানা মাদকাসক্ত এবং তার মাদক পরীক্ষা করাতে হবে।

যদিও সানা নিজে মাদকের কথা অস্বীকার করেছেন। বলেছেন, তিনি ওই সময়ে শুধুমাত্র মদ্যপান করেছিলেন। কিন্তু তাতেও বিতর্ক বিন্দুমাত্র কমেনি।

৩৬ বছরের সানা এক সময়ে ছিলেন পৃথিবীর সবচেয়ে কম বয়সি প্রধানমন্ত্রী। নিজের ব্যক্তিগত জীবন, পার্টি-জীবন এবং মিউজিক কনসার্টের প্রতি ভালোবাসার কথা তিনি কখনও গোপন করেননি। এই সূত্রেই এর আগে তার বিরুদ্ধে বিরোধীদের অভিযোগ ছিল, তিনি বড্ড বেশি মাত্রায় মিউজিক কনসার্টে যান। তার উচিত কাজে বেশি মন দেওয়া। যদিও সে কথায় বেশি পাত্তা দেননি ফিনল্যান্ডের এই নেত্রী।

তবে করোনাকালে তাকে নিয়ে নতুন করে বিতর্ক হয়। কারণ সেই সময়ে করোনা আক্রান্তের সংস্পর্শে আসার পরেও তিনি ক্লাবে গিয়েছিলেন বলে অভিযোগ। পরে সানা সে জন্য ক্ষমাও চান।

সম্প্রতি জার্মানির এক সংবাদমাধ্যম তাকে পৃথিবীর সবচেয়ে ‘কুল’ প্রধানমন্ত্রী বলে অ্যাখ্যা দিয়েছে। তার পরেই এই কাণ্ড।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া ভিডিও সম্পর্ক তার বক্তব্য, ‘আমি নেচেছি, গান গেয়েছি এবং পার্টি করেছি। এর কোনওটাই বেআইনি নয়। আমায় কখনও মাদক সেবন করতেও দেখা যায়নি।’

যদিও বিরোধী নেত্রী রিক্কা পুরা একথায় গুরুত্ব দিতে নারাজ। তার বক্তব্য, সানার উচিত নিজে থেকেই মাদক পরীক্ষা করানো। কারণ প্রধানমন্ত্রী মাথার উপর সন্দেহের মেঘ জমে রয়েছে।

BSH
Bellow Post-Green View