চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘সাইনিং মানি’ না পেয়ে থানায় অভিনেত্রী, পরিচালক বললেন ‘আমি কিছু জানি না’

পরিচালক ও প্রযোজকের বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন রাজ রিপা

Nagod
Bkash July

প্রতারণার শিকার হয়েছেন বলে দাবী করেছেন নবীন অভিনেত্রী রাজ রিপা। তার দাবী, নাসিম সৈনিক নামের একজন পরিচালক ও মামুনুর ইসলাম নামে একজন প্রযোজক তার সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। তাই তাদের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ এনে মঙ্গলবার রমনা থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি নং ১৭৪৬) করেছেন।  

Reneta June

জিডিতে রাজ রিপা উল্লেখ করেন, পাঁচ দিনের কথাবার্তার পর ২৪ নভেম্বর পরিচালক ও প্রযোজক তাকে ‘ব্যাচেলর ইন ট্রিপ’ নামে একটি ছবিতে চুক্তিবদ্ধ করান। চুক্তি বাবদ ৩০ পারসেন্ট টাকা দেয়ার কথা থাকলেও দেয়নি। মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে পাঠাবে বলেও পাঠায়নি। কিন্তু চুক্তিবদ্ধ হওয়ার ছবি ফেসবুকে পোস্ট দিতে এবং নিউজ করাতে চাপ দেন। তবে টাকা চাইলে টালবাহানা করতে থাকেন পরিচালক ও প্রযোজক। পরবর্তীতে তারা বিভিন্নভাবে হুমকি দিতে থাকেন।

রাজ রিপার আনা অভিযোগের ভিত্তিতে পরিচালক নাসিম সৈনিক বলেন, নায়িকা ঠিক করেছিলেন প্রযোজক। টাকা পয়সা লেনদেনের ক্ষেত্রে আমি তেমন কিছু জানি না। তবে হ্যাঁ, সাইনিংয়ের দিন প্রযোজকের কাছে টাকার হয়তো ঘাটতি ছিল। এজন্য তাকে পরে দেয়ার কথা বলেছিল। কিন্তু পরবর্তীতে নায়িকা টাকার জন্য চাপ দিলে প্রযোজক মনঃক্ষুণ্ণ হন। টাকা না পেয়ে নায়িকা ছবি করতে চাননি। পরে কী হয়েছে আমার জানা নেই।

রাজ রিপা বলেন, ডিসেম্বরে এই ছবির শুটিং করার কথা। সেজন্য তড়িঘড়ি করে আমাকে সাইন করায়। কিন্তু পরে যখন আমি ৩০ পারসেন্ট পারিশ্রমিক চাই তখন বুঝতে পারি যে এই পরিচালক ও প্রযোজক তলাবীহিন ঝুড়ির মতো। তারা সাইনিংয়ের ছবি ফেসবুকে প্রকাশ করে বিভিন্ন নায়িকাদের সঙ্গে মিশতে চায় এবং প্রতারণা করেন। তাদের দুজনের বিরুদ্ধে আমি আইনি ব্যবস্থা নেব। মামলা করবো। তার আগে জিডি করেছি।

২০১৮ সালে জাজ মাল্টিমিডিয়া ‘দহন’ ছবিতে পার্শ্ব চরিত্রে প্রথম অভিনয় করেন রাজ রিপা। পরে ইফতেখার চৌধুরীর ‘মুক্তি’ নামে একটি ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। জাজের আরেক ছবি ময়না-তেও অভিনয় করেন। ছবিগুলো মুক্তি অপেক্ষায় আছে বলে জানান রাজ রিপা।

BSH
Bellow Post-Green View