চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সেই ধর্ষণ মামলা থেকে রেহাই পেলেন রোনালদো

একযুগের বেশি সময় পর কলঙ্কমুক্ত হলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। পর্তুগিজ মহাতারকার বিরুদ্ধে করা ক্যাথরিন মায়োর্গার ধর্ষণ মামলা খারিজ করে দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের আদালত। চাইলেও এই রায়ের বিরুদ্ধে আর আবেদন করতে পারবেন না অভিযোগকারী মডেল ও শিক্ষিকা।

লাস ভেগাসের মার্কিন ডিসট্রিক্ট বিচারক জেনিফার ডরসি শুক্রবার নারী অ্যাটর্নি লেসলি মার্ক স্টোভালকের ‘খারাপ-বিশ্বাসের আচরণ’ এবং ‘চুরি করা’ গোপনীয় নথি ব্যবহারের শাস্তিস্বরূপ মামলাটি খারিজ করেছেন। একইসঙ্গে রোনালদোর থেকে বেশি অর্থ নেয়ার জন্যও মামলার বিড হারিয়েছেন ওই আইনজীবী।

Reneta June

বিচারক ডরসি মামলার রায়ে লিখেছেন, ‘অত্যন্ত উঁচু মানের একজন ব্যক্তির বিপক্ষে এই মামলা চালিয়ে যাওয়ার সুযোগ হারিয়েছেন ক্যাথরিন মায়োর্গা। অসদুপায়ে অর্জিত নথি তার অভিযোগকে অতিরঞ্জিত করেছে ও মামলার অন্য ভিত্তিকে মজবুত করেছে। শুধু তার কথায় ও বিলম্বিত উপলব্ধির উপর ভিত্তি করে একজন সম্মানীয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে রায় দেয়া ভুল হতো।’

বিজ্ঞাপন

লাগ ভেগাস অ্যাটর্নি অফিসের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘সব তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে রোনালদোর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করা হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাকে বেকসুর খালাস দেয়া হল।’

২০০৯ সালে মায়োর্গা অভিযোগে করেছিলেন, লাস ভেগাসের একটি হোটেলে রোনালদো তাকে যৌন হেনস্থা করেছিলেন। অভিযোগ শুরু থেকেই অস্বীকার করে আসছিলেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড স্ট্রাইকার। দুজনের সম্মতিতেই সবকিছু হয়েছিল বলে দাবি করে আসছিলেন রোনালদো।

রোনালদোর আইনজীবী পিটার ক্রিশ্চিয়ানসেন বলেছেন, ‘আমরা আদালতের বিস্তারিত পর্যালোচনায় খুশি হয়েছি। মিস্টার রোনালদোর থেকে এই অভিযোগ তুলে নেয়ার সুপারিশকে আমরা স্বাগত জানাচ্ছি।’