চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

গরু থেকে ক্ষতিকর গ্যাস বন্ধে স্টার্টআপে বিল গেটসের বিনিয়োগ

Nagod
Bkash July

গরুসহ বিভিন্ন গবাদি পশুর পেট থেকে বের হওয়া ক্ষতিকর মিথেন নির্গমন হ্রাস ও জলবায়ু পরিবর্তনরোধী খাদ্য ব্যবস্থা নিয়ে কাজ করা একটি স্টার্টআপে বিনিয়োগ করেছেন মাইক্রোসফ্টের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস। তার প্রতিষ্ঠিত “ব্রেকথ্রু এনার্জি ভেঞ্চারস” সম্প্রতি রুমিন৮ নামের একটি অস্ট্রেলিয়ান স্টার্টআপে ১২ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে।

Reneta June

বিবিসি এ তথ্য জানিয়েছে।

বিল বিগত কয়েক বছর ধরেই জলবায়ু নিয়ে কাজ করে আসছেন। তারই ধারাবাহিকতায় সর্বশেষ পদক্ষেপটি এই বিনিয়োগ।

কার্বন ডাই অক্সাইড (CO2) এর পরে মিথেন হল জলবায়ুর জন্য সবচেয়ে ক্ষতিকারক গ্রিনহাউস গ্যাস। যা ওজন স্তরের জন্য খুবই ক্ষতিকারক। গরু, ছাগল এবং হরিণের মতো গবাদি পশু তাদের পাকস্থলীতে জমে থাকা খাবার হজমের জন্য গাঁজন প্রক্রিয়ায় ঘাসের মতো শক্ত ফাইবার ভেঙ্গে মিথেন তৈরি করে, যা বেশিরভাগ সময় বের হয়ে যায়। রুমিন৮ এই মিথেন নির্গমন রোধে কাজ করছে।

স্টার্টআপটি প্রযুক্তির মাধ্যমে কৃত্রিমভাবে এক প্রকার সামুদ্রিক লাল শৈবাল থেকে এর প্রতিলিপি তৈরি করে, যা গবাদি পশুর খাদ্য তালিকায় ব্যবহার করা যাবে এবং এর ফলে মিথেন গ্যাস তৈরি বন্ধ হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় দেখা যায় যে, গরুকে এই সামুদ্রিক শৈবাল খাওয়ানো হলে তাদের মিথেন নির্গমন উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করা সম্ভব।

রুমিন৮ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডেভিড মেসিনা বলেন, প্রাণীসম্পদ থেকে মিথেন নির্গমনের সমাধানের জন্য যে অর্থায়ন পেয়েছি তাতে আমরা খুব আনন্দিত।

২০১৯ সালে বায়ুমণ্ডলে মিথেন রেকর্ড মাত্রায় পৌঁছেছে, যা প্রাক-শিল্প যুগে ছিল তার থেকে প্রায় আড়াই গুণ বেশি। বিজ্ঞানীদের উদ্বেগের বিষয় হল যে, গ্রহকে উত্তপ্ত করার ক্ষেত্রে মিথেনের অবদান সবথেকে বেশী। মিথেনর অণু কার্বনের তুলনায় বায়ুমণ্ডলের উষ্ণায়নে অধিক প্রভাব ফেলে। যা ওজন স্তর ধ্বংসের জন্য দায়ী।

BSH
Bellow Post-Green View