চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ নিয়ে ইসরায়েলের নির্মাতার কটাক্ষ, ক্ষমা চাইলেন রাষ্ট্রদূত

Nagod
Bkash July

ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল অফ ইন্ডিয়ায় ইসরায়েলের চলচ্চিত্র নির্মাতা ও উৎসবের জুরি প্রধান নাদাভ ল্যাপিড ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ ছবিটির সমালোচনা করেছেন। পাল্টা জবাব দিয়েছেন অনুপম খের। নাদাভ ল্যাপিডের মন্তব্যের সমালোচনা করে ক্ষমা চেয়েছেন ইসরায়েলের রাষ্ট্রদূতও।

Reneta June

২০ নভেম্বর গোয়ায় বসে ভারতীয় আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের আসর। এই উৎসবেই ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ ছবিটিকে ‘কুৎসিত ও অশ্লীল’ বলেছেন ইসরায়েলের পরিচালক।

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন এই পরিচালক চলচ্চিত্র উৎসবের জুরি বোর্ডেরও প্রধান। তিনি সিনেমাটিকে ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’ ছবিও বলেছেন। শুধু তাই নয়, প্রতিযোগিতা বিভাগে কী করে এই ছবি অংশ নিয়েছে তা নিয়েও বিস্ময় প্রকাশ করেছেন তিনি।

নির্মাতা বলেছেন, ‘আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় ১৫টি ছবি ছিল, তার মধ্যে ১৪টি দারুণ মানের ছিল। তবে ১৫ নম্বরটি দেখে আমরা স্তম্ভিত ও বিরক্ত। ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’- এটা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত, কুৎসিত ও অশ্লীল ছবি। এমন একটি ঐতিহ্যবাহী চলচ্চিত্র উৎসবের প্রতিযোগিতা বিভাগের জন্য একেবারেই অনুপযুক্ত এই ছবি।’

বিবেক অগ্নিহোত্রী পরিচালিত ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ ছবিটিতে প্রধান চরিত্রে রয়েছেন অনুপম খের, মিঠুন চক্রবর্তী এবং পল্লবী জোশী। ‘কাশ্মীর ফাইলস’ নিয়ে নাদা ল্যাপিডের সমালোচনার পাল্টা উত্তর দিয়েছেন অনুপম খের।

টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘মিথ্যার উচ্চতা যতই বেশি হোক, সত্যের তুলনায় তা সবসময়েই কম থাকে।’ এই পোস্টে তিনি কারো নাম উল্লেখ না করলেও কাশ্মীর ফাইলের কিছু ছবি জুড়ে দিয়েছেন।

নাদাভ ল্যাপিডের মন্তব্যের সমালোচনা করেছেন ভারতের ইসরায়েলের রাষ্ট্রদূত নায়োর গিলন। একের পর এক টুইটের সিরিজে নাদাভ লাপিডের তীব্র সমালোচনা করেছেন নায়োর গিলন। তিনি বলেন, ‘কাশ্মীরে যা হয়েছে, তা নিয়ে কোনও মন্তব্য করার আগে তাই ভালো করে জেনে বুঝে নেওয়া উচিত।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমি আমন্ত্রণকারীদের কাছে আপনার এই আচরণের জন্য এবং একজন মানুষ হিসাবেও ক্ষমা চাইব।’

১৯৯০ সালে জম্মু-কাশ্মীর থেকে কাশ্মীরি পণ্ডিতদের বিতাড়িত করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে নির্মাণ করা হয়েছে এই ছবি।

সূত্র: এনডিটিভি

BSH
Bellow Post-Green View