চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

চিকিৎসায় আর সাড়া দিচ্ছে না পেলের শরীর

Nagod
Bkash July

কোলন ক্যান্সারের সঙ্গে লড়ছিলেন পেলে। এরমধ্যে হৃদরোগজনিত সমস্যা দেখা দেয়। গত মঙ্গলবার তাকে আলবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। শনিবার মিলল আরও বড় দুঃসংবাদ। পেলের শরীরে কেমোথেরাপিও আর কাজ করছে না। চিকিৎসকরা কেমো বন্ধ করে দিয়েছেন। কিংবদন্তি ফুটবলারকে সুস্থ করে তোলার জন্য আর কোনো চিকিৎসাও অবশিষ্ট নেই।

Reneta June

ব্রাজিলের গণমাধ্যমে খবর, ৮২ বর্ষী পেলেকে বর্তমানে প্যালিয়েটিভ কেয়ার (palliative care) ইউনিটে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। সেখানে তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। যেসব রোগীর শরীর দরকারি চিকিৎসায় আর সাড়া দেয় না, তাদের জীবনের শেষ প্রান্তের কষ্ট কমানোর চূড়ান্ত চেষ্টা প্যালিয়েটিভ কেয়ার।

হৃদরোগ ও শরীর ফুলে যাওয়ায় পেলেকে আলবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছিল। তার মেয়ে কেলি নাসিমেন্তো ইনস্টাগ্রাম পোস্টে আশ্বস্ত করে লিখেছিলেন, আমার বাবার শারীরিক অবস্থা নিয়ে গণমাধ্যমে ব্যাপক হৈচৈ চলছে। কোনো জরুরি অবস্থা কিংবা নতুন করে ভয়ানক কিছু ঘটেনি। কিছু ছবি পোস্ট করার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি।

পরে ইনস্টাগ্রাম পোস্টে পেলে লিখেছিলেন, ‘বন্ধুরা, আমি হাসপাতালে মাসিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য এসেছি। আপনাদের কাছ থেকে পাওয়া অসংখ্য ইতিবাচক বার্তা সব সময়ই দারুণ। সেজন্য ধন্যবাদ। আমাকে এভাবে শ্রদ্ধা জানানোর জন্য কাতারকেও ধন্যবাদ।’

২০২১ সালের সেপ্টেম্বরে ৮২ বর্ষী পেলের শরীর থেকে একটি টিউমার অপসারণ করা হয়েছিল। এরপর থেকে তিনি নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে আসা-যাওয়ার মাঝেই ছিলেন। সেসময় থেকে তার কেমোথেরাপিও চলেছে।

পেলে ব্রাজিলের তিন বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য। স্বদেশি ক্লাব সান্তোসের হয়ে ৬৫৯টি অফিসিয়াল ম্যাচে ৬৪৩ গোল করেছিলেন। জাতীয় দলের হয়ে ৯২ ম্যাচে ৭৭ গোল তার।

BSH
Bellow Post-Green View