চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

চার বছর পর পরিচালনায়, তবুও আত্মবিশ্বাসী অন্ত

‘আহত ফুলের গল্প’র চার বছর পর নির্মাণে অন্ত আজাদ

প্রায় চার বছর আগে তরুণ নির্মাতা অন্ত আজাদ নির্মাণ করেছিলেন নিজের প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘আহত ফুলের গল্প’। ২০১৮ সালের শেষ দিকে বিকল্প ব্যবস্থায় রাজধানী ঢাকা থেকে কয়েকশো মাইল দূরে পঞ্চগড় জেলার দেবীগঞ্জ উপজেলায় ‘আহত ফুলের গল্প’ দেখানোর ব্যবস্থা করেন তিনি। টানা দুই সপ্তাহ ছবিটি চালিয়েছিলেন অন্ত। সিনেমাটি নানা কারণেই তখন হইচই ফেলে।

প্রথম নির্মাণের প্রায় চার বছর পর ক্যামেরার পেছনে এই তরুণ। তবে এবার সিনেমা নয়, অন্ত নির্মাণ করেছেন টেলিছবি। নাম ‘চারুলতার নিখোঁজ সংবাদ’। খন্দকার মো. জাকিরের কাহিনীতে নির্মাণের পাশাপাশি এর চিত্রনাট্যও অন্ত আজাদের। যা শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) দুপুর ৩টা ৫ মিনিটে চ্যানেল আইয়ে দেখানো হবে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

‘চারুলতার নিখোঁজ সংবাদ’ এর একটি দৃশ্যে আইশা খান

চ্যানেল আইয়ের জন্য নির্মিত এই টেলিছবি দিয়ে বহুদিন পর পরিচালনায় ফিরতে পেরে উচ্ছ্বসিত অন্ত আজাদ। জানালেন, মাঝখানে চার বছর নির্দেশনার সুযোগ তৈরী না হলেও নিয়মিত নির্মাণের সাথেই ছিলেন। বিভিন্ন জনের সাথে ক্যামেরার পেছনে কাজ করেছেন, পর্দার সামনেও টুকটাক পাওয়া গেছে তাকে।

বিজ্ঞাপন

চার বছর পর নিজের প্রথম নির্মাণ, তবু আত্মবিশ্বাসী অন্ত আজাদ। নিজের টেলিছবির গল্প নিয়ে এই নির্মাতা বলেন, গল্পটি একজন লেখকের। যিনি রাইটিং ব্লকে পড়েছেন। কিছুই লিখতে পারছেন না। ঘটনাক্রমে একদিন বৃষ্টির রাতে তার ঘরে উঠেন একজন মেয়ে। যে মেয়েটা প্রচণ্ড ঘোর তৈরী করে। লেখক বুঝতে পারেন না, মেয়েটি কি তার গল্পের চরিত্র নাকি বাস্তবের!

টেলিছবিতে লেখকের চরিত্রে অভিনয় করেছেন ইরফান সাজ্জাদ, আর ঘোর তৈরী করে দেয়া মেয়ের চরিত্রে আইশা খান। এছাড়াও আরও অভিনয় করেছেন কায়েস চৌধুরী, রোজী সিদ্দিকী, বৈশাখী ঘোষ, নাসির উদ্দীন, সায়িমা সেলিম আনিকা, হিমেল এবং রাজন।

টেলিছবিতে লেখকের চরিত্রে অভিনয় করেছেন ইরফান সাজ্জাদ

টেলিছবিটির চিত্রগ্রহণে ছিলেন হৃদয় সরকার, সম্পাদনায় শরীফ আহমেদ, মিউজিক তত্ত্বাবধানে আছেন ইমন চৌধুরী।

অন্ত জানান, মহামারীর সময়টাতে তিনি মোট দুটি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের চিত্রনাট্য গুছিয়ে ফেলেছেন। এরইমধ্যে একটি চলচ্চিত্র নিয়ে কথা হচ্ছে প্রযোজকের সাথে। সব ঠিক থাকলে চলতি বছরেই নিজের দ্বিতীয় সিনেমার কথা জানাতে পারবেন তিনি।