চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

১০০ টাকায় হসপিটালিটি বক্স!

লাঞ্চ বিরতি তখন শেষ। নতুন করে ক্রিজে নেমেছেন তামিম ইকবাল ও নাজমুল হোসেন শান্ত। শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের হসপিটালিটি বক্সে গিয়ে দেখা গেল মাত্র দুইজন দর্শক। হাজার টাকার টিকেট তারা কিনেছেন মাত্র ১০০ টাকায়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দুই তরুণ জানালেন, কম দামে টিকেট মিলেছে বলেই তারা এসেছেন হসপিটালিটি বক্সে।

মিরপুরে ওয়ানডে কিংবা টি-টুয়েন্টি ম্যাচ হলে টিকেটের জন্য থাকে হাহাকার। কালোবাজারে দাম বেড়ে যায় কয়েকগুণ। টেস্টে ঠিক বিপরীত চিত্র। টিকেট কেনার লোক নেই বিসিবির নির্ধারিত বুথে। স্টেডিয়ামের বাইরে কতিপয় কালোবাজারি আওয়াজ তুলছেন ‘১০০ টাকায় হসপিটালিটি বক্স’ বলে।

তারপরও মিডিয়া সেন্টার ভবনের কালো গ্লাসে ঘেরা হসপিটালিটি বক্সে দর্শকের সংখ্যা থমকে আছে দুইয়ে। পুরো স্টেডিয়ামে দর্শক উপস্থিতি এক হাজারেরও কম। অথচ এখানকার ধারণক্ষমতা প্রায় ২৫ হাজার।

বিজ্ঞাপন

টেস্টের টিকেট বিক্রি নিয়ে বিসিবি যে ক্ষতির মুখে পড়বে সেটি বলার অপেক্ষা রাখে না। টিকেট ছাপাতে যা খরচ হয়েছে, সেটিই উঠবে কিনা সন্দেহ। তারপর আবার বাইরে চলে যাচ্ছে টিকেট। বিক্রি হচ্ছে গায়ের মূল্যের চেয়ে অনেক কম দামেও।

বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে সিরিজের একমাত্র টেস্টে হসপিটালিটি বক্সের টিকেটের দামই সবচেয়ে বেশি। এখানে বসলে বোলিং-ব্যাটিং সোজাসুজি দেখা যায়। বোঝা যায় বল ও ব্যাটের গতিবিধি।

গ্র্যান্ড স্ট্যান্ডের টিকেটের মূল্য ধরা হয়েছে ৫০০ টাকা। ভিআইপি স্ট্যান্ডের পাওয়া যাচ্ছে ৩০০ টাকায়। ক্লাব হাউসের টিকেট মূল্য ২০০ টাকা। নর্থ ও সাউথ গ্যালারির জন্য বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকায়। পূর্ব গ্যালারির ৫০ টাকা। কম মূল্যে টেস্টের টিকেট মিললেও সাড়া নেই দর্শকদের।

বিজ্ঞাপন