চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘হিরো আলম আমার মর্যাদা বোঝে নাই, তাকে নিয়ে সিনেমা করছি না’

হিরো আলমকে নিয়ে সিনেমা করার ঘোষণা দেয়ার ক’দিন পরেই এমন সিদ্ধান্ত থেকে সরে এলেন অনন্ত জলিল

মিউজিক ভিডিও থেকে আলোচনা সমালোচনার মাধ্যমে উঠে আসা হিরো আলমকে নিয়ে সিনেমা নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছিলেন অনন্ত জলিল। লুক টেস্ট ও ফটোশুটও করিয়েছিলেন। তবে দিন কয়েকের ব্যবধানে এমন সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছেন অনন্ত জলিল।

‘মোস্ট ওয়েলকাম’ ছবির এ তারকা জানালেন, হিরো আলমকে সিনেমা থেকে বাদ দিচ্ছেন। একইসঙ্গে হিরো আলমকে নিয়ে বিব্রত অবস্থায় পড়ার কথাও জানান অনন্ত জলিল।

বিজ্ঞাপন

গেল মাসের মাঝামাঝি সময়ে হিরো আলমকে নিজের অফিসে ডেকে ছিলেন অনন্ত জলিল। তার প্রযোজিত নতুন ছবিতে নেয়ার ঘোষণাও দিয়েছিলেন তখন। কিন্তু কয়েক দিনের ব্যবধানে এমন সিদ্ধান্ত থেকে কেন সরে এলেন অনন্ত? বৃহস্পতিবার বিকেলে ফেসবুকে পোস্টে সে বিষয়টিই জানিয়েছেন অনন্ত জলিল। 

অনন্ত জলিল লিখেছেন, আমি হিরো আলমকে নিয়ে কোন সিনেমা বানাবো না এবং পঞ্চাশ হাজার টাকা সাইনিং মানি ফেরৎ নিবনা। সিংহভাগ বিনোদন সাংবাদিকরা এবং চলচ্চিত্র পরিবারের সকল গুণীজনরা হিরো আলমকে নিয়ে সিনেমা না বানানোর জন্য আপত্তি জানাচ্ছেন।

যোগ করে অনন্ত জলিল জানান, সম্প্রতি হিরো আলমের কিছু অশ্লীল ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সকলেই আবারো আমাকে নিষেধ করছেন তাকে নিয়ে সিনেমা না বানানোর। সবসময় আমি বিব্রত হচ্ছি, হিরো আলমের এসব বিতর্কিত বিষয়গুলোর জন্য।

তিনি উল্লেখ করেন, দীর্ঘদিন যাবৎ আমি চলচ্চিত্র অঙ্গনে সম্মানের সহিত কাজ করে আসছি, চলচিত্রের প্রতিটি সংগঠনের সাথে ভালো সম্পর্ক আছে, প্রতিটি সংগঠনই আমাকে সন্মনের চোখে দেখে। তাই এই সম্মান রক্ষার্থে বিতর্কিত কাউকে নিয়ে আমি সিনেমা বানাতে চাই না। চলচ্চিত্রের কোন সংগঠনই চাচ্ছেনা যে আমি হিরো আলমকে নিয়ে সিনেমা বানাই। চলচ্চিত্রের প্রত্যকটি সংগঠনের সন্মানার্থে আমিও চাইনা বিতর্কিত কাউকে নিয়ে সিনেমা বানাতে।

স্ট্যাটাসে অনন্ত জলিল আরও উল্লেখ করেন, কিছুদিন আগে আমি নিজ উদ্যোগে জায়েদ খানের সঙ্গে হিরো আলমকে মিল করিয়ে দিয়েছিলাম এবং প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও তাদেরকে নিয়ে একসঙ্গে লাঞ্চ করেছিলাম। মীমাংসা করে দেওয়ার পরেও একই বিষয় নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় হিরো আলম মন্তব্য করছেন যা মোটেও কাম্য নয়।

মনক্ষুণ্ণ অনন্ত জানান, আমার এত ব্যস্ততার মাঝেও আমি হিরো আলমকে পাশে বসিয়েছিলাম, সে আমার মর্যাদা বোঝে নাই। আমার মর্যাদা যেহেতু বোঝে নাই তাই আমি চাইনা ভবিষ্যতে তার দ্বারা আমার মর্যাদা ক্ষুণ্ণ হোক। আমি চাচ্ছিলাম তার পাশে দাঁড়িয়ে তাকে সহযোগিতা করার, যাতে করে তার উপকার হয়।

হিরো আলমের উপর ক্ষোভ ঝেড়ে অনন্ত জলিল লেখেন, এ ধরনের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য মানুষের সঙ্গে আমার কাজ করা সম্ভব না। তার এই চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের কারণে আমি আর তাকে নিয়ে সিনেমা বানাবো না। পঞ্চাশ হাজার টাকা সাইনিং মানি যেটি দিয়েছি সেটি আমি চাইছি না, সেটি তাকে আমি দিয়ে দিলাম।

এ বিষয়ে হিরো আলমের মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে অনন্ত জলিলের স্ট্যাটাসের পরেই আলম তার ফ্যান পেজে লেখেন, ‘আমি ষড়যন্ত্রের শিকার হলাম।’