চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সৌদি তেল কারখানায় হামলা: ইরানকে দুষছে যুক্তরাষ্ট্র

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও শনিবার সৌদি আরবে দু’টো তেল উত্তোলনকারী কারখানায় ড্রোন হামলার ঘটনায় ইরানকে দায়ী করেছেন।

ইতোমধ্যে হামলার দায় স্বীকার করেছে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা। কিন্তু পম্পেও এই দাবিটি মানতে নারাজ।

বিজ্ঞাপন

শনিবার স্থানীয় সময় ভোর ৪টার দিকে সৌদি আরবে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন তেল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সৌদি আরামকো’র আবক্বাইক্ব এবং খুরাইসে অবস্থিত দু’টি স্থাপনায় ড্রোন হামলার ঘটনা আগুন লেগে যায়।

আরামকোর শিল্পাঞ্চল নিরাপত্তা বাহিনী কয়েক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সফল হয়।

বিজ্ঞাপন

তবে সৌদি আরবের জ্বালানি বিষয়ক মন্ত্রী এবং আরামকো’র চেয়ারম্যান খালিদ এ. আল-ফালিহ জানিয়েছেন, এই হামলার ফলে অপরিশোধিত তেল উত্তোলন দৈনিক ৫৭ লাখ ব্যারেল করে কমে গেছে, যা সৌদি সাম্রাজ্যের মোট তেল উৎপাদনের প্রায় অর্ধেক।

এর ফলে বিশ্ব বাজারে তেলের দামে ব্যাপক প্রভাব পড়বে বলে আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

গত মাসে আমিরাত সীমান্ত সংলগ্ন আরামকোর শায়বাহ প্রাকৃতিক গ্যাস তরলীকরণ কারখানায় চালানো হামলার দায় স্বীকার করেছিল ইয়েমেনের ইরান সমর্থিত হুতি বিদ্রোহীরা। অবশ্য ওই হামলায় কোনো হতাহতের কথা জানায়নি আরামকো।

গত কয়েক মাসে হুতি বিদ্রোহীরা সৌদির সীমান্তবর্তী বিমান ঘাঁটিসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা লক্ষ্য করে পর পর বেশ কয়েকটি মিসাইল এবং ড্রোন হামলা চালিয়েছে। তাদের বক্তব্য, ইয়েমেনে বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণাধীন এলাকাগুলোতে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের হামলা ও যুদ্ধের প্রতিশোধ হিসেবে হামলাগুলো চালানো হয়েছে।

Bellow Post-Green View