চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সুনাম দেবনাথের বিরুদ্ধে হত্যাকারী চক্রকে প্রশ্রয়ের অভিযোগ

বরগুনায় আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক কোন্দলে প্রভাব বিস্তার করতে বরগুনা-১ এর সংসদ সদস্য ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর ছেলে সুনাম দেবনাথের আশ্রয়-প্রশ্রয়েই রিফাত শরীফের হত্যাকারী চক্রটি বেপরোয়া হয়ে উঠেছিল বলে অভিযোগ করছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা এবং সাধারণ মানুষের।

সুনাম দেবনাথ এ নিয়ে কথা না বললেও ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের কোন্দল বেশ পুরোনো। তবে ২০০১ এর জাতীয় নির্বাচনের সময় তা তীব্র হয়ে ওঠে। সে সময় আওয়ামী লীগের বর্তমান সংসদ সদস্য ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর বিপক্ষে বর্তমানে বরগুনার জেলা প্রশাসনের প্রশাসক দেলোয়ার হোসেন স্বতন্ত্র নির্বাচন করে বিজয়ী হন।

পরে আওয়ামী লীগের অন্য নেতাদের মধ্যেও কোন্দল ছড়িয়ে পড়ে। ২০১৮’র জাতীয় নির্বাচনে বরগুনা-১ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে সবচেয়ে বেশি ফরম বিক্রি হয়েছিল।

বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি দেলোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবিরসহ বরগুনার কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর থেকেই বর্তমান সংসদ সদস্যের ছেলে এলাকার বখাটে এবং সন্ত্রাসীদের আশ্রয়-প্রশ্রয়ের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হন।

জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম সরোয়ার টুকু এবং জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি জুবায়ের আদনান অনিকসহ অন্যান্য নেতাদের মতে, বরগুনায় ত্রাস সৃষ্টি করে একচ্ছত্র আধিপত্য বজায় রাখতেই এমপি পুত্র সুনাম দেবনাথ রিফাত শরীফের হত্যাকারীদের মতো আরো অনেক সন্ত্রাসীকেই সাথে রাখতেন।রিফাত হত্যা-মামলা-হত্যার আসামি

বিজ্ঞাপন

কিন্তু সংসদ সদস্য এবং তার ছেলের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলতে ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর বরগুনার অফিসে গেলে তার কর্মীদের তোপের মুখে পড়েন চ্যানেল আইয়ের কর্মীরা। সুনাম দেবনাথ কথা না বললেও পরে চ্যানেল আইয়ের সঙ্গে কথা বলেন সংসদ সদস্য।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা এবং সাধারণ মানুষের সব অভিযোগ অস্বীকার করেন শম্ভু। দাবি করেন, এগুলো সবই বানানো কথা।

শুধু রিফাত শরীফের হত্যাকারীদেরই নয়, বরগুনায় অপরাধের সাথে জড়িত এবং তাদের আশ্রয় প্রশ্রয় দেয়া সবার কঠোর বিচারের দাবি জেলা আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীসহ সাধারণ মানুষের।

বিস্তারিত দেখুন ভিডিও প্রতিবেদনে:

শেয়ার করুন: