চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সিনহা হত্যা মামলা: ২৩ আগস্ট প্রতিবেদন জমা দিতে আশাবাদী তদন্ত কমিটি

মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খানের খুনের ঘটনায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটি আগামী ২৩ আগস্ট প্রতিবেদন জমা দিবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

রোববার বিকাল ৫টার দিকে তদন্ত কমিটির প্রধান চট্টগ্রাম বিভাগের অতিরিক্ত কমিশনার মিজানুর রহমান গণশুনানী শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে তিনি একথা বলেন।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয় গঠিত তদন্ত কমিটির তদন্তকাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। নির্ধারিত সময় ২৩ আগষ্টের মধ্যেই সিনহা হত্যার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়া হবে।

কক্সবাজারের টেকনাফ শামলাপুর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ক্যাম্প ইনচার্জের (সিআইসি) কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত গণশুনানিতে আজ ৯ জন প্রত্যক্ষদর্শীর সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়। এপর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্ট প্রায় ৬০ জনের সাক্ষ্য নিয়েছে তদন্ত কমিটি। এছাড়া ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ৩ বার।

তদন্ত কমিটির প্রধান আরও জানান, সিনহা হত্যাকাণ্ডের ঘটনার উৎস এবং কারণ যেমন তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা থাকবে। এরকম ঘটনার যাতে পুনরাবৃত্তি না ঘটে, সেজন্য বেশ কিছু সুপারিশও দেয়া থাকবে তদন্ত রিপোর্টে।

তিনি বলেন, ‘আজ তদন্তের স্বার্থে গণশুনানি করেছি। এতে ১১জন সাক্ষ্য দিতে নাম নিবন্ধন করলেও আমরা ৯জনের কাছ থেকে সাক্ষ্য নিয়েছি। অন্য ২জনকে ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী মনে হয়নি।’

মিজানুর রহমান জানান, মামলার তদন্তের স্বার্থে যেখানে যাওয়ার প্রয়োজন আমরা সব জায়গা গিয়েছি। এতে সরকারি-বেসরকারি ৬০জনের জবানবন্দি নেয়া হয়েছে।’

বিজ্ঞাপন

এদিকে সকালে শুরু হওয়া গণশুনানিতে ১১ জন প্রত্যক্ষদর্শী নাম নিবন্ধন করেন। এরমধ্যে ৯জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়।

গত ৩১ জুলাই কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া শামলাপুর পুলিশ তদন্তকেন্দ্রে নিহত হয় সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো: রাশেদ খান।

এদিকে গণশুনানির খবরে সকাল থেকে শামলাপুর রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকা উৎসুক জনতা ভিড় জমান। এসময় সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে টেকনাফের শামলাপুর রোহিঙ্গা ক্যাম্প ইনচার্জের কার্যালয়ে তদন্ত কমিটি এই গণশুনানি শুরু করার আগে সাক্ষ্য দিতে ১১ জনের নাম নিবন্ধন করা হয়। নিবন্ধন করা এসব সাক্ষীদের কাছ থেকে ৯জনের সাক্ষ্য নেয় তদন্ত কমিটি।

গত ১২ আগস্ট তদন্ত কমিটির সদস্য কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহা. শাহজাহান আলী একটি গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেন। এতে তিনি বলেন, ৩১ জুলাই আনুমানিক রাত ১০টার দিকে মেজর (অব.) সিনহা মো. রাশেদ খান নিহতের ঘটনায় সুষ্ঠু তদন্তে জন্য গণশুনানির আয়োজনের ঘোষনা দেয়।

প্রসঙ্গ, গত ৩ জুলাই সিনহা মো. রাশেদ খানের সঙ্গে শিপ্রা দেবনাথ, সাহেদুল ইসলাম সিফাত ও তাহসিন রিফাত নুর কক্সবাজার আসেন ভ্রমণবিষয়ক ভিডিওচিত্র ধারণ করতে।

পরে ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফের মারিশবুনিয়া পাহাড়ে ভিডিওচিত্র ধারণ করে মেরিন ড্রাইভ দিয়ে কক্সবাজারের হিমছড়ি এলাকায় একটি রিসোর্টে ফেরার পথে শামলাপুর  পুলিশ তল্লাশি চৌকিতে গুলিতে নিহত হন মেজর (অব.) সিনহা।

এ সময় পুলিশ সিনহার সঙ্গে থাকা সিফাতকে আটক করে কারাগারে পাঠায়। পরে রিসোর্ট থেকে শিপ্রাকে আটক করা হয়। দুজনই বর্তমানে জামিনে মুক্ত।

ওই ঘটনায় ওসি প্রদীপ সহ পুলিশ কর্মকর্তা, সদস্য ও পুলিশের দায়ের করা মামলার তিন সাক্ষী কক্সবাজার জেলা কারাগারে রয়েছে। এদের মধ্যে ৪ পুলিশ সদস্য ও ৩ সাক্ষীকে রিমান্ড শুনানি করছে তদন্তকারী সংস্থা র‌্যাব।