চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সাম্প্রদায়িক হামলায় সিনেমার সংগঠনগুলোর প্রতিবাদ

সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদ জানাতে রাস্তায় নামলো সিনেমার সংগঠনগুলো। শিল্পী সমিতি, পরিচালক সমিতিসহ এফডিসির একাধিক সংগঠন রোববার (৩১ অক্টোবর) দুপুর ১২টায় এফডিসির গেটে দাঁড়িয়ে মানববন্ধন করে প্রতিবাদ জানায়।

সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকে সম্প্রতি ঘটে যাওয়া কুমিল্লা, চাঁদপুর, পীরগঞ্জ, নোয়াখালীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সংঘাতময় ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাওয়া হয়। মানবন্ধনে আরও বলা হয়, ধর্ম যার যার উৎসব সবার, এই হোক আমাদের অঙ্গীকার।

ব্যানার ফেস্টুন হাতে প্রতিবাদ জানাতে রাস্তায় নেমেছিলেন চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি সোহানুর রহমান সোহান, সাধারণ সম্পাদক শাহীন সুমন, শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর, সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান, মাসুদ পারভেজ রুবেল, চিত্রনায়িকা অঞ্জনা রহমান, ওমর সানী, আলেকজান্ডার বো, মারুফ আকিব, সাদেক সিদ্দিকী, মাসুম বাবুল প্রমুখ।

সোহানুর রহমান সোহান বলেন, সবাই মিলেমিশে থাকবো, যার যার ধর্ম সে সে পালন করবে। সবার উৎসব সবাই মিলে পালন করবো। আগামীতে যাতে করে আর কেউ সাম্প্রদায়িক হামলার সাহস না পায়। এজন্য ঘটে যাওয়া ঘটনাগুলোর দ্রুত বিচার চাই।

বিজ্ঞাপন

চিত্রনায়ক রুবেল বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় শুধু মুসলমানরা যুদ্ধ করেনি। অন্য ধর্মের মানুষরাও যুদ্ধ করেছিলেন। তাই দেশটা সবার। আমাদের ভ্রাতৃত্বের বন্ধন যাতে আগামীতে নষ্ট না হয়, সব ধর্মের মানুষরা এক থেকে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে চাই।

মিশা সওদাগর বলেন, আমাদের সোনার বাংলায় যেসব ঘটনা ঘটেছে তা নিন্দনীয়। এতে আমাদের দেশেরই সম্মানহানী হচ্ছে। যেখানে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে সেখানে দিন দিন দেশে সহিংসতা বাড়ছে। সম্প্রতি যেসব বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটেছে, এর সুস্থ তদন্ত করে বিচার করা হোক। একজনের বিচার করে অন্যদের সর্তক করে দিতে হবে। যার ধর্ম তাকে পালন করতে দিতে হবে।

তিনি বলেন, কাউকে কটাক্ষ করা যাবে না। দিন শেষে আমরা মানুষ। ধর্ম যার দেশে অধিকার সবার। অন্যকে ধর্ম পালন করতে বাধাগ্রস্ত করা যাবে না। সরকারের উন্নয়নে বাংলাদেশ এগিয়ে নিতে আমাদের সবাইকে সহায়তা করতে হবে।

জায়েদ খান বলেন, ধর্মের অপব্যাখ্যা দিয়ে অল্পকিছু মানুষ আমাদের সম্প্রীতি নষ্ট করছে। কিন্তু একটি দেশে বিভিন্ন ধর্মের মানুষ করে যে যার ধর্ম পালন করবে এটাই হওয়া উচিত। যা ঘটে গেছে তা যেন ভবিষ্যতে আর ঘটে সেজন্য সবাই সচেতন থাকবো। দেশটা সবার।

ওমর সানী বলেন, চক্রান্ত করে এমন ঘটনা ঘটানো হচ্ছে। এটা দেশের বিরুদ্ধে চক্রান্ত। আমাদের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য এগুলো করা হচ্ছে। এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। প্রতি ধর্মের মানুষকে সম্মান দিতে হবে। তাহলেই আমরা সুখে বাস করতে পারবো।

বিজ্ঞাপন