চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সমস্ত ‘ভুলের’ ক্ষমা চাইলেন মেসি

বার্সেলোনা নমনীয় হলে হয়তো এই মৌসুমে আর ন্যু ক্যাম্পেই দেখা যেত না লিওনেল মেসিকে। ক্লাবের একের পর এক ভুল সিদ্ধান্ত, বায়ার্ন মিউনিখের কাছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ৮-২ গোলে বিধ্বস্ত হওয়া, বন্ধু লুইস সুয়ারেজের ক্লাব ছাড়া; সব মিলিয়ে বার্সাকে বিদায়ই বলে দিয়েছিলেন ক্লাবটির ইতিহাসে সর্বকালের সেরা খেলোয়াড়টি। তবে শেষ পর্যন্ত আইনি লড়াইয়ের ভয় দেখিয়ে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডকে ধরে রাখতে পারাই বার্সার ২০১৯-২০ মৌসুমের সেরা সাফল্য।

এরপরও একটা ‘কিন্তু’ থেকেই যাচ্ছিলো। মেসিকে না হয় আগামী মৌসুম পর্যন্ত আটকে রাখা গেছে কিন্তু ১৬ বছর ধরে বার্সার জন্য নিজের সর্বস্ব নিংড়ে দেওয়া মেসি আর অনেকটা জোর করে খাঁচায় আটকে রাখা মেসির খেলার মান কী হবে? ক্লাব ছাড়তে না পারায় ছয়বারের ব্যালন ডিঅর জয়ী মহাতারকা দলের অন্যদের মধ্যে আবার ভুল বার্তা ছড়িয়ে দেবেন না তো?

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার ডায়ারিও স্পোর্তের কাছে মেসি অবশ্য স্বীকার করে নিয়েছেন যে একটা ‘ভুল’ অবশ্য হয়েছে তবে সেটা ক্লাবের নয়, নিজের। মৌসুমের আগে তাকে নিয়ে যত ‘কেচ্ছা কাহিনী’ হয়েছে তার জন্য ক্ষমাও চেয়েছেন তিনি। এসব কাহিনী ভুলে গিয়ে সব কিছু আবার নতুন করে শুরুর আহ্বান এলএম টেনের!

বিজ্ঞাপন

‘একসঙ্গে অনেক মতবিরোধের পর আমি সবকিছুর শেষ এবং যেকোনো মতভেদকে দূরে সরিয়ে রাখতে চাই। যদি কোনো ভুল করে থাকি তাহলে তার সমস্ত দায় আমি আমার কাঁধে তুলে নিচ্ছি। স্বীকার করছি যা করেছি সেটা বার্সেলোনার ভালোর জন্য এবং ক্লাবকে আরও শক্তিশালী করার জন্য।’

বিজ্ঞাপন

‘আমি সবাইকে জানিয়ে দিতে চাই যদি কোনো ক্লাব সমর্থক আমার কথায় বা কাজে কষ্ট পান, রেগে থাকেন তাহলে জেনে নিন আমি সবসময় যা করেছি সেটা ক্লাবের সর্বোচ্চ ভালোর জন্যই করেছি।’

বায়ার্ন মিউনিখের কাছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে ৮-২ গোলে বিধ্বস্ত হওয়ার পর ব্যুরো ফ্যাক্সের মাধ্যমে তাকে ফ্রি ট্রান্সফারে ছেড়ে দেওয়ার আহ্বান করেছিলেন মেসি। বার্সা যথারীতি সেই আহ্বানকে প্রত্যাখ্যান করে। তাদের দাবি ছিলো যদি বার্সা ছাড়তেই হয় তবে ৭০০ মিলিয়ন ইউরো পরিশোধ করে তবেই ন্যু ক্যাম্প ছাড়তে হবে তাকে।

এরপর দশদিন রশি টানাটানির পর গোল ডটকমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মেসি জানান: অন্তত এই মৌসুমে আর বার্সা ছাড়া হচ্ছে না তার। প্রিয় ক্লাবকে আইনি লড়াইয়ের নিতে চান না বলেই সিদ্ধান্ত পাল্টানোর কথা জানান তিনি।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ভরাডুবির পর চাকরি হারান কিকে সেতিয়েন, দায়িত্ব পান সাবেক বার্সা তারকা রোনাল্ড কোম্যান। তার হাত ধরে মৌসুমের প্রথম ম্যাচে ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে ৪-০ গোলের বড় জয় পেয়েছে বার্সা, এক গোল এসেছে মেসির পা থেকে। এখন নতুন কোচকে নিয়ে সামনের পথে তাকাচ্ছেন ক্লাবটির আর্জেন্টাইন অধিনায়ক।