চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শ্রেষ্ঠ ২০ স্মার্টফোন

বিশ্বকে হাতের মুঠোয় এনেছে স্মার্টফোন। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে নানা ব্র্যান্ডের নানা মান, দামী-সস্তা স্মার্টফোনে প্রযুক্তি বাজার সরগরম। কোন স্মার্টফোনটি বাজারে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছে তা নিয়ে বিভিন্ন প্রযুক্তি পাড়ায় আছে নানামত।

সেটা থাকতেই পারে। তবে স্মার্টফোনে আগ্রহীদের জন্য কোন ফোনগুলো বাজারে কী অবস্থানে আছে তা জানার আগ্রহে কমতি নেই। সেই আগ্রহ পূরণে ২০টি শ্রেষ্ঠ স্মার্টফোনের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি তুলে ধরেছে প্রভাবশালী গণমাধ্যম বিজনেস ইনসাইডার।

১. গুগল পিক্সেল: গ্যালাক্সি এসএইট, আইফোন এইট এসবকে ছাড়িয়ে বিজনেস ইনসাইডারের শ্রেষ্ঠ স্মার্টফোন তালিকা শীর্ষে আছে গুগলের সর্বাধুনিক স্মার্টফোন গুগল পিক্সেল। কারণ গুগলের পিক্সেল লঞ্চার দেয় পরিপাটি চেহারার অ্যান্ড্রয়েড এবং অ্যান্ড্রয়েডের সর্বশেষ সংস্করণ আপডেট হয় সময়মতো। উচ্চক্ষমতার স্ন্যাপড্রাগন ৮২১ প্রসেসর এবং ৪ জিবি র‌্যামে চলে এই স্মার্টফোন। আইফোন সেভেনপ্লাস এবং গ্যালাক্সি এসএইটের মতো গুগল পিক্সেলে আছে ১২.৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। দাম ৬’শ ৪৯ মার্কিন ডলার।

২. গুগল পিক্সেল এক্সএল: গুগলের নেক্সাস ডিভাইসগুলোর চেয়ে এই স্মার্টফোনের হার্ডওয়্যারে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। অ্যালুমিনিয়াম বডির চমৎকার দেখতে স্মার্টফোনটির পেছনে আছে স্টাইলিশ গ্লাস প্যানেল। আকারে পিক্সেলের চেয়ে একটু বড় এক্সএল স্মার্টফোনের স্ক্রিন ৫.৫ ইঞ্চি। দাম ৭’শ ৬৯ ডলার।

৩. আইফোন সেভেনপ্লাস: ডুয়াল লেন্সের ক্যামেরা নিয়ে হাজির হয়ে আইফোন সেভেনকে পেছনে ফেলেছে আইফোনসেভেন প্লাস। একেবারে পেশাদার ফটোগ্রাফারের মতো ‘বোকেহ’ ইফেক্টে ছবি তোলা যায় এই ফোনে। দামে গুগল পিক্সেলের সঙ্গে কোনো পার্থক্য নেই। অর্থাৎ আইফোন সেভেনপ্লাসের দাম ৭’শ ৬৯ ডলার।

৪. আইফোন সেভেন: বাহ্যিক দিক থেকে এটি দেখতে অনেকটাই আইফোন ৬এস-এর মতো। এক্ষেত্রে সম্পূর্ণ ভিন্ন বিষয়টি হচ্ছে এর রঙ। নতুন জেট ব্ল্যাক এবং ব্ল্যাকসহ সিলভার, গোল্ড, রোজ গোল্ড মোট পাঁচটি রঙে পাওয়া যায় আইফোন ৭। আইফোনের প্রথাগত হোম বাটনের পরিবর্তে টাচ হোম বাটন ব্যবহার করা হয়েছে আইফোন ৭-এ। এটি ৫৫ মিটার পানির নিচ পর্যন্ত অক্ষত থাকতে পারে। আগের থেকে উন্নত ১২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে আইফোন ৭-এ। এই ক্যামেরা আগের তুলনায় ৬০ শতাংশ দ্রুত ছবি তুলতে পারে এবং ৫০ শতাংশ বেশি আলো ধারণ করতে পারে। দাম ৬’শ ৫০ ডলার।

বিজ্ঞাপন

৫. গ্যালাক্সি এসএইটপ্লাস: দেখতে গ্যালাক্সি এসএইটের মতো তবে আকারে কিছুটা বড়। ৬.২ ইঞ্চি ডিসপ্লে আছে এসএইটপ্লাসে।৮ মেগা পিক্সেল ক্যামেরা এবং ডুয়েল পিক্সেল সেন্সর-সহ ১২ মেগা পিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা আছে এতে। এই স্মার্টফোনের অন্যতম ফিচার আইরিস স্ক্যান অর্থাৎ আপনার চোখের মণি এই ফোনের পাসওয়ার্ড। এর সঙ্গে ফেস স্ক্যান, ফিঙ্গার স্ক্যান, প্যাটার্ন, পাসওয়ার্ড এবং পিনের মতো আরও সিকিউরিটি অপশন আছে। দাম ৮’শ ৪০ ডলার।


৬. গ্যালাক্সি এসএইট: গ্যালাক্সি এসএইট আইফোনের চেয়েও দেখতে সুন্দর বলে মনে করে বিজনেস ইনসাইডার। গ্যালাক্সি এসসেভেনের চেয়ে স্ক্রিনের পাশের আল্ট্রা ন্যারো বর্ডার ফোনটিকে দিয়েছে প্রিমিয়াম ও লাক্সারিয়াস লুক।

৭. এলজি জি৬: নতুন আসা এলজি জি৬ কে এলজির স্মার্টফোনগুলোর মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ বলে তালিকায় উল্লেখ করেছে বিজনেস ইনসাইডার। দারুণ ডুয়াল লেন্স ক্যামেরা জয় করবে মন। স্ন্যাপড্রাগন ৮২১ প্রসেসরে চলে এই স্মার্টফোন। দাম ৬’শ ৮০ মার্কিন ডলার।

৮. আইফোন সিক্সএস প্লাস: আইফোন ৭ প্লাস বাজারে চলে আসায় আইফোন সিক্স প্লাস পাওয়া যাচ্ছে ১০০ ডলার কমে। এটা দারুণ খবর। উচ্চক্ষমতার এ৯ চিপে চলে এই স্মার্টফোন। থ্রিডি টাচ সুবিধা। দাম ৬’শ ৫০ ডলার।

৯. আইফোন সিক্স এস: নতুন আইফোন ৭ এর চেয়ে ১০০ ডলার কম খরচ করেও আপনি অ্যাপলের উৎকৃষ্ট প্রযুক্তির অভিজ্ঞতা পেতে পারেন। এ ছাড়া সুন্দর হার্ডওয়্যারের পাশাপাশি থার্ড পার্টি ডেভেলপারদের থেকে সেরা অ্যাপসগুলো প্রথমে পেতে পারেন। এবং অ্যাপলের সর্বশেষ এবং সেরা ফিচারের সফটওয়্যার আপডেট পাবেন এতে।
মূল্য : ৪’শ ৭৮ ডলার।

১০. আইফোন এসই: ৪ ইঞ্চি স্ক্রিনসহ আইফোন এসই এই মুহূর্তে কেনার জন্য সেরা ছোট আকারের স্মার্টফোন। এতে রয়েছে সেরা সব অ্যাপস, ইকোসিস্টেম, সাপোর্ট এবং আইফোন সিক্স এস এর সমান পারফর্মেন্স। মূল্য : ৩৯৯ ডলার।

বিজনেস ইনসাইডারের করা শ্রেষ্ঠ স্মার্টফোনের তালিকায় ১১ নম্বর থেকে শুরু করে ২০ নম্বর পর্যন্ত থাকা স্মার্টফোনগুলো যথাক্রমে : ওয়ানপ্লাস থ্রিটি, হুওয়াওয়ে মেট ৯, মোটো জেড, এইচটিসি ১০, মোটো জিফাইভ প্লাস, এলজি ভি২০, জেডটিই অ্যাক্সন ৭, গ্যালাক্সি নোট ৫, ব্ল্যাকবেরি প্রিভ এবং ব্ল্যাকবেরি ক্ল্যাসিক।

বিজ্ঞাপন