চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শুটিংস্পট থেকে নিরাপদেই ঢাকায় ফিরেছেন শ্যামল-প্রসূন

ভোরে রওনা দিয়ে নেত্রকোনার বিরিশিরি থেকে নিরাপদেই ঢাকায় ফিরে এসেছেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা শ্যামল মওলা ও অভিনেত্রী প্রসূন আজাদ

ভোরে রওনা দিয়ে নেত্রকোনার বিরিশিরি থেকে নিরাপদেই ঢাকায় ফিরে এসেছেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা শ্যামল মওলা ও অভিনেত্রী প্রসূন আজাদ। সোমবার বিকাল সোয়া চারটার দিকে চ্যানেল আই অনলাইনকে এমনটাই জানালেন শ্যামল মওলা।

‘মেঘমায়া’ ও ‘জনক’ নামের দুটি নাটকের শুটিং করতে গেল ২৫ মে শ্যামল মওলা, প্রসূনসহ বেশকিছু আর্টিস্ট নিয়ে বিরিশিরি গিয়েছিলেন নির্মাতা আজাদ কালাম। রবিবার দিবাগত রাতে শুটিং শেষ হয় তাদের। স্থানীয় হোটেল ভাড়া, গাড়ী ভাড়া, শিল্পীদের পাওনা টাকা না দিয়ে এদিন মধ্যরাতে শুটিং সেট থেকে হঠাৎ নির্মাতার উধাও হয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া যায়। ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে নিজেদের অবস্থার কথা জানিয়েও ছিলেন প্রসূন আজাদ। তবে শেষ পর্যন্ত নিরাপদেই ঢাকায় এসেছেন এই দুই অভিনয় শিল্পী।

তবে নির্মাতা উধাও হয়ে যাওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেন শ্যামল মওলা। তিনি বলেন: না, নির্মাতা উধাও হননি। দুর্গম এলাকায় থাকার ফলে এক জায়গায় আমরা ছিলাম, এবং আরেক জায়গায় ডিরেক্টর ছিলো। উনার ফোন বন্ধ থাকায় এরকমটা হয়েছে। আজকে ভোরে আমি আর প্রসূন বের হয়ে এসেছি। আর ডিরেক্টর সব ভাড়া পরিশোধ করে পরে আসবেন।

Advertisement

তবে টাকা পরিশোধ নিয়ে স্থানীয় হোটেল ভাড়া, গাড়ী ভাড়া নিয়ে রবিবার দিবাগত রাতে যে অবস্থা তৈরি হয়েছিলো সে কথা স্বীকার করেন শ্যামল মওলা। জানান, একটু আগেও নির্মাতার সাথে কথা হয়েছে।

এদিকে প্রসূন আজাদ রবিবার মধ্যরাতে দেয়া নির্মাতার লাপাত্তা হয়ে যাওয়ার খবরটি ফেসবুক থেকে সরিয়ে নিয়েছেন। তারসাথে ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তার ব্যবহৃত নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়। তবে ঢাকায় ফিরে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন প্রসূন। বলেছেন: বাসায় আসছি ঠিকঠাক। ডিরেক্টর, শুটিং ইউনিট কারো খবর জানি না। আমি ভোর বেলায় বের হয়ে আসছি।

শ্যামল মওলা ও প্রসূন ঢাকায় ফিরে এলেও নির্মাতা আজাদ কালামের মোবাইল নম্বরটি সোমবার বিকাল পর্যন্ত বন্ধ পাওয়া যায়।