চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শিশু জয়নবের ধর্ষক ঝুলল ফাঁসিতে

পাকিস্তানে ছয় বছরের শিশু জয়নব আমিনকে ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে মৃত্যুদণ্ডের সাজাপ্রাপ্ত আসামি ইমরান আলীকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে।

স্থানীয় সময় বুধবার ভোরে লাহোরের কোট লাখপাত কেন্দ্রীয় কারাগারে তাকে ফাঁসিতে ঝোলানো হয়।

মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার সময় সেখানে ম্যাজিস্ট্রেট আদিল সারোয়ারের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন নিহত জয়নবের বাবা মুহাম্মাদ আমিন আনসারি। জয়নবের চাচাও ছিলেন সেখানে। তারা সবাই ভোররাতেই কোট লাখপাত কারাগারে পৌঁছান।

ফাঁসির আগে ইমরান আলীর এক ভাই ও দুই বন্ধু একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে কারাগারে প্রবেশ করেন। ফাঁসির সময় নিরাপত্তার স্বার্থে কোট লাখপাত জেল ঘিরে রেখেছিল সাধারণ ও দাঙ্গা পুলিশ বাহিনী।

মেয়ের হত্যাকারীর ফাঁসি কার্যকরে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন জয়নাবের বাবা আমিন আনসারি। তবে ফাঁসিটি গণমাধ্যমে সরাসরি সম্প্রচার করার অনুমতি না দেয়ায় আফসোস করেছেন তিনি।

আনসারির মতে, এটি ছিল নতুন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ‘পাকিস্তানকে মদিনায় পরিণত করার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি’ পূরণের একটি সুবর্ণ সুযোগ।

Advertisement

‘জয়নবের বয়স আজকে পুরো সাত বছর দু’মাস হতো। ওপর মা কষ্টে ভেঙে পড়েছে,’ বলেন তিনি।

জয়নব হত্যা-ফাঁসি কার্যকর
শিশু জয়নব আমিন আনসারি

তবে পাকিস্তানের প্রধান বিচারপতিকে ধন্যবাদও জানান আনসারি। বলেন, তার মেয়ের খুনি আজ তার কর্মফল পেল।

ফাঁসি কার্যকরের পর অ্যাম্বুলেন্সে করে ইমরানের মরদেহ কাসুরে ফিরিয়ে নিয়ে যান স্বজনরা।

গত ৪ জানুয়ারি পাকিস্তানের কাসুর থেকে নিখোঁজ হয় শিশু জয়নব আমিন আনসারি। এর পাঁচদিন পর আবর্জনার স্তুপ থেকে তার মরদেহ পাওয়া যায়। জয়নাব হত্যাকাণ্ডে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ পুরো পাকিস্তানে #JusticeforZainab দিয়ে ক্যাম্পেইন ও বিক্ষোভ শুরু হয়।

এরপর ডিএনএ পরীক্ষার ভিত্তিতে ২৩ জানুয়ারি হত্যাকাণ্ডে জড়িত ২৪ বছর বয়সী ইমরান আলীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গত ফেব্রুয়ারিতেই ইমরানকে দোষী সাব্যস্ত করে তাকে ফাঁসির আদেশ দেন পাকিস্তানের আদালত।