চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শামসুরের ব্যাটে জয়ে ফিরল চট্টগ্রাম

দরকার ১ বলে ২ রান। বোলার আল-আমিন হোসেন। ব্যাট হাতে শামসুর রহমান শুভ। শেষ বলে দারুণ এক ছক্কা মেরে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামকে জয়ে ফেরালেন এ ব্যাটসম্যান।

দুর্দান্ত লড়াইয়ের পর মাহমুদউল্লাহ-মাশরাফী-সাকিবদের জেমকন খুলনাকে ৩ উইকেটে হারিয়ে বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপে প্লে-অফ নিশ্চিত করেছে চট্টগ্রাম। ৬ ম্যাচে ৫ জয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকল তারা। ৭ ম্যাচে ৪ জয়ে ৮ পয়েন্ট পাওয়া খুলনারও প্লে-অফ নিশ্চিত।

বিজ্ঞাপন

খুলনা-১৫৭/৯ (২০ ওভার), চট্টগ্রাম-১৬২/৭ (২০ ওভার)

টানা চার জয়ের পর পঞ্চম ম্যাচে হারতে হয়েছিল সৌম্য-লিটন-মিঠুনদের। এক ম্যাচ পরই কক্ষপথে ফিরল দলটি।

শেষে দারুণ জমে ওঠে ম্যাচ। ২ ওভারে ২৫ রান দরকার ছিল চট্টগ্রামের। শুভাগত হোমের করা ইনিংসের ১৯তম ওভার থেকে আসে ১৬ রান।

বিজ্ঞাপন

শেষ ওভারে দরকার পড়ে ৯ রান। মোস্তাফিজ ও শামসুর মিলে দলকে নিয়ে যান জয়ের বন্দরে। ৩০ বলে ৪৫ রান করে অপরাজিত থাকেন শামসুর। মোস্তাফিজ ৪ বলে করেন ৫ রান। তাদের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৪ রান আসে মাহমুদুল হাসান জয়ের ব্যাটে।

দুটি করে উইকেট নিয়েছেন শুভাগত ও সাকিব আল হাসান। ৯ মাস পর ক্রিকেটে ফেরা মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা বল হাতে খারাপ করেননি। ৪ ওভারে ২৮ রান দিয়ে নিয়েছেন একটি উইকেট। দারুণ এক অফকাটারে বোল্ড করেন সৈকতকে।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা খুলনা দেড়শ পেরোয় শুভাগতর শেষের ঝড়ে। ১৪ বলে ৩২ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন তিনি। ওপেনিংয়ে নামা জহুরুল ইসলাম ও অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর ব্যাট থেকে আসে সমান ২৬ রান করে।

ইমরুল কায়েস করেন ২৪ রান। ফের ইনিংস বড় করতে পারেননি সাকিব আল হাসান। ১৫ রান করে ফেরেন সাজঘরে।

শরিফুল ইসলাম ৩টি ও মোস্তাফিজুর রহমান নেন ২টি উইকেট। মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ও জিয়াউর রহমান নেন একটি করে উইকেট।