চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

লকডাউন উঠে গেলো উহানে; ৭৬ দিন পর মুখরিত শহর

আজ থেকে ঠিক ৭৬ দিন আগে হঠাৎ কালো মেঘ ভর করে উহানের আকাশে। ঘোর অন্ধকার নেমে আসে শহরে, মৃত্যুর ভয়ংকর শঙ্কা ভর করে মানুষের সুন্দর জীবনযাত্রায়। ভয়ংকর এক মহামারী এসে মানুষকে  বাধ্য করে গৃহবন্দি হতে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে উহান লকডাউন ঘোষণা করে চীন সরকার। মানুষে হয়ে যায় গৃহবন্দি। অবশেষে বিধিনিষেধ উঠল করোনার উৎসস্থল উহান থেকে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

গত বছরের শেষভাগ থেকে করোনা ছড়িয়ে পড়লেও জানুয়ারিতে পরিস্থিতি ক্রমশ নিয়ন্ত্রণের বাইরে বেরিয়ে যেতে থাকে উহানের। সংক্রমণ রুখতে গত ২৩ জানুয়ারি থেকে চিনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরকে তালাবন্ধ করে দিয়েছিল প্রশাসন। তারপরও চিনে প্রায় ৮০,০০০ করোনা আক্রান্তের ৫০,০০০ হাজারই উহান থেকে খবর এসেছিলো। সেখানে মৃত্যু হয় ২,৫০০-এর বেশি। তবে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হয়েছে পরিস্থিতি।

গত জানুয়ারিতে জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন প্রতিদিনের পরিসংখ্যান প্রকাশ শুরুর পর থেকে মঙ্গলবার চীনে প্রথমবারের মতো করোনায় মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি। আর তারপরই উহানে ৭৬ দিন পর লকডাউন প্রত্যাহারের পথে হেঁটেছে প্রশাসন।

লকডাউন উঠে যাওয়ার পর চীনের অন্যান্য প্রদেশের সঙ্গে গণপরিবহন ব্যবস্থা শুরু হয়েছে। ট্রেন, বাস, উড়োজাহাজ ছেড়েছে শহর থেকে। শহরের সীমান্ত দিয়ে ব্যক্তিগত গাড়ি চলাচলেরও অনুমতি মিলেছে। তবে নতুন করে সংক্রমণ যেন না হয়, তা নিশ্চিত করতে বিভিন্ন আবাসনের ঢোকা ও বেরোনোর পথে নজরদারি চালানো হচ্ছে। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, রেস্তোরাঁ, হোটেল, দোকান, বাস ও সাবওয়ে স্টেশনের তরফে আমজনতাকে হেলথ কোড স্ক্যান ও রেজিস্টার করানোর পরামর্শ দেওয়া হবে। ফলে তাঁদের শারীরিক অবস্থা ও ভ্রমণ সংক্রান্ত তথ্যে রাখতে পারে প্রশাসন।