চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রোহিঙ্গা নিধনের ঘটনায় প্রথমবারের মতো সু চি’র বিরুদ্ধে মামলা

বিজ্ঞাপন

মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের ঘটনায় দেশটির নোবেল জয়ী নেত্রী অং সান সু চি’র বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে আর্জেন্টিনায়। বুধবার সু চিসহ মিয়ানমারের শীর্ষ নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে এই মামলা করেছেন কয়েকজন রোহিঙ্গা নাগরিক এবং ল্যাটিন আমেরিকান মানবাধিকার গোষ্ঠী।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান জানায়, এই মামলার মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মতো আইনি প্রক্রিয়ার মুখোমুখী হতে যাচ্ছেন সু চি। ‘‘বিশ্বব্যাপী আইনি সুবিধার” নীতি মেনে মামলাটি করা হয়েছে, যেখানে অনেক দেশের আইনের সমন্বয় রয়েছে।

রোহিঙ্গাদের ‘‘অস্তিত্বের হুমকির” জন্য মামলায় মিয়ানমারের সেনা প্রধান মিন অং হ্লাইয়াং, নোবেল জয়ী নেত্রী সু চিসহ শীর্ষ সেনা কর্মকর্তা এবং রাজনৈতিক ব্যক্তিকে বিচারের মুখোমুখি করার দাবি জানানো হয়েছে।

মামলার আইনজীবী টমাস ওজেয়া বলেন, মামলার অভিযোগে অপরাধের অনুমোদন, অপরাধী এবং গণহত্যায় সহযোগীদের খুঁজে বের করার কথা উঠে এসেছে। আমরা আর্জেন্টিনার মাধ্যমে তা খোঁজার চেষ্টা করছি, কারণ অপরাধের বিষয়ে অভিযোগ দেয়ার মতো তাদের (রোহিঙ্গাদের) আর কোন জায়গা নেই।

তিনি আশা প্রকাশ করেন, এই মামলার কারণে দোষীদের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হবে।

এ বিষয়ে বার্মিজ রোহিঙ্গা অর্গানাইজেশন ইউকে’র (বিআরওইউকে) প্রেসিডেন্ট তুন খিন বলেন, দশকের পর দশক ধরে মিয়ানমার সরকার হত্যা, নির্যাতন, অন্যদেশে পালিয়ে যেতে বাধ্য করাসহ নানাভাবে তাদের নির্মূল করতে চেয়েছে।

আর্জেন্টিনার আদালত এই মামলা গ্রহণ করেছেন। পাশাপাশি স্পেনের সাবেক স্বৈরশাসক ফ্রান্সিসকো ফ্রাংকো এবং চীনের ফালুন গং আন্দোলন সংশ্লিষ্ট দুটি মামলাও গ্রহণ করেছেন আদালত।

এই মামলাসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের আদালত ২০১৭ সালে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর চালানো গণহত্যার ঘটনায় মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টি করছেন। গত সোমবার হেগে জাতিসংঘের শীর্ষ আদালতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেছে গাম্বিয়া।

বিজ্ঞাপন

Bellow Post-Green View