চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রমজানে মাথা ব্যথা!

মাথা ব্যথা অনেকেরই রমজান মাসের প্রাত্যহিক সমস্যা। ঘুমের স্বল্পতা, চা-কফির অভ্যাস হুট করে ছেড়ে দেয়া, পানি কম খাওয়া কিংবা খাদ্যাভ্যাসের কারণে রমজানে মাথা ব্যথা হতে পারে। সেই সাথে প্রচণ্ড রোদও হতে পারে মাথা ব্যথার কারণ। জেনে নিন রমজান মাসে মাথা ব্যথার সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার কিছু উপায়।

পরিমিত ক্যাফেইন গ্রহণ
যারা অতিরিক্ত চা-কফি গ্রহণ করে অভ্যস্ত তাদের রমজান মাসে সাধারণত ক্যাফেইনের অভাবে মাথা ব্যথা হতে পারে। তাই রমজান মাস শুরু হওয়ার আগেই চা-কফি গ্রহণ কমিয়ে ফেলা দরকার ছিল। রমজানের কমপক্ষে এক সপ্তাহ আগে থেকে ক্যাফেইনের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করলে রোজা রাখলে মাথা ব্যথা করার প্রবণতা কম হয়। প্রয়োজনে সেহরিতে এক কাপ চা কিংবা কফি খেয়ে নিন। এতে ক্যাফেইনের অভাবে মাথা ব্যথার সম্ভাবনা কমবে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সেহরিতে মিষ্টি খাবার পরিহার
অনেকেই সেহরিতে দুধ কলা দিয়ে ভাত কিংবা নানান রকম মিষ্টি খাবার খেয়ে থাকেন। সেহরিতে অতিরিক্ত মিষ্টি খাবার খেয়ে রোজা রাখলে মাথা ব্যথা করার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। হঠাৎ রক্তে চিনির পরিমাণ বেড়ে গিয়ে আবার দ্রুত কমে যাওয়ার ফলে মাথা ব্যথা হতে পারে। তাই সেহরিতে অতিরিক্ত মিষ্টি খাবার না খাওয়াই ভালো।

প্রচুর পানি পান
মানুষের মস্তিষ্কের ৭৫% পানি। তাই পানির সরবরাহ কমে গেলে ক্লান্তি ও মাথা ব্যথা করে। রমজানে মাথা ব্যথার অন্যতম কারণ হলো পানি শূন্যতা। রোজা রেখে যেহেতু পানি পান করা যায় না সেহেতু ইফতার থেকে সেহরি পর্যন্ত প্রচুর পানি পান করুন। আর চেষ্টা করুন সেহরিতে কমপক্ষে এক লিটার পানি পান করার।

পর্যাপ্ত ঘুম
রমজানে ঘুমের অভ্যাস পরিবর্তনের কারণেও মাথা ব্যথা হতে পারে। যেহেতু সেহরির সময় ঘুম ভাঙ্গে, সেহেতু একটু আগেই ঘুমানোর চেষ্টা করুন। অনেকেই রাতে না ঘুমিয়ে সেহরি খেয়ে তারপর ঘুমান। এই অভ্যাসটি খুবই ক্ষতিকর। খেয়াল রাখুন যেন ঘুমের সময়টা কমপক্ষে ৭/৮ ঘণ্টা হয়। হেলথ টোয়েন্টিফোর।