চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রোহিতের সঙ্গে দ্বন্দ্ব নিয়ে মুখ খুললেন কোহলি

সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেয়ার পর ভারতীয় দলের অধিনায়কত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠে। শোনা যাচ্ছিল বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মার মধ্যে নেতৃত্ব ভাগাভাগি করে দেয়ার পরিকল্পনা ছিল ভারতীয় বোর্ডের। যদিও আসন্ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে তিন ফরম্যাটেরই কোহলির হাতেই নেতৃত্ব তুলে দেয়া হয়।

বিশ্বকাপে ব্যর্থ হওয়ার পর সীমিত ওভারের ফরম্যাটে কোহলির পরিবর্তে রোহিত শর্মার হাতে নেতৃত্বের ভার তুলে দেয়ার এটাই ঠিক সময় কিনা, তা নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছিলেন ভারতীয় দলের সাবেক ওপেনার ওয়াসিম জাফর। তার পরই সোশাল মিডিয়ায় রোহিতের পক্ষে মতামত জানান অনেকে।

বিজ্ঞাপন

টেস্টে কোহলির হাতে নেতৃত্ব রেখে ২০২৩ বিশ্বকাপের কথা ভেবে এখনই ওয়ানডে এবং টি-টুয়েন্টি ফরম্যাটে রোহিতের হাতে নেতৃত্বের ভার তুলে দেয়া উচিত বলে মতামত জানান ভক্ত-সমর্থকরা।

বিজ্ঞাপন

রোহিতের সঙ্গে তার দ্বন্দ্ব নিয়ে মুখ খুললেন বিরাট। সোমবার মুম্বাইয়ে ক্যারিবিয়ান সফরের উদেশ্যে দেশ ছাড়ার আগে সংবাদ সম্মেলনে কোহলি বলেন, ‘বাইরে থেকে আমি অনেক কথাই শুনেছি। কিন্তু এটা ভেবে দেখা উচিত, ড্রেসিংরুমের পরিবেশ ঠিক না-থাকলে আমরা ওয়ানডে ক্রিকেটে উপরের দিকে থাকতে পারতাম না। ড্রেসিংরুমের পরিবেশ ঠিক না-থাকলে আমাদের সেরা পারফরম্যান্স বেরিয়ে আসত না। দলের এই পারফরম্যান্স সম্ভব বিশ্বাস ও পারস্পরিক বোঝাপড়ার মধ্যদিয়ে।’

কোহলি আরও বলেন, ‘আমার মতে, এটা হাস্যকর। কিছু বিষয় ও ফ্যানটাসির মধ্যে থেকে এই ধরনের লেখাগুলো ভিত্তিহীন। কিছু মিথ্যাকে তুলে ধরার চেষ্টা। ড্রেসিংরুমে ঢুকলেই আপনার বুঝতে পারতেন সেখানে কী ধরনের পরিবেশ ছিল।’

বিশ্বকাপে কোহলি কোনো সেঞ্চুরি না করতে পারলেও পাঁচটি সেঞ্চুরি তুলে টপস্কোরার ছিলেন রোহিত (৬৪৮)। সেমিফাইনালের মতো মেগা ম্যাচেও মাত্র ১ রান করে ড্রেসিংরুমে ফিরেছিলেন ভারত অধিনায়ক। টুর্নামেন্টে মোট ৪৪৩ রান করে একাদশতম স্থানে ছিলেন কোহলি।

রোহিতের পারফরম্যান্সের প্রশংসা করে কোহলি বলেন, ‘আমি যদি কোনো ব্যক্তিকে পছন্দ না-করি তবে, আপনি তা আমার মুখের উপর দেখতে পাবেন। আমি সবসময় রোহিতের প্রশংসা করেছি। আমাদের মধ্যে কোনো সমস্যা নেই। কারা এতে উপকৃত হচ্ছে তা জানি না। আমরা ভারত ক্রিকেটকে শীর্ষে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছি। পরস্পরের মধ্যে বোঝাপড়া না-থাকলে আপনি এই জাতীয় আবেগ নিয়ে খেলতে পারবেন না।’