চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রিয়ালের বাঁচা-মরার ম্যাচে থাকছেন রামোস-কারভাহাল

নকআউটে খেলতে হলে বরুশিয়া মনশেনগ্লাডবাখের বিপক্ষে জিততেই হবে। নয়ত চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রথমপর্ব থেকেই বাদ পড়ার বিরল কিন্তু লজ্জার এক অভিজ্ঞতা হবে সর্বোচ্চ ১৩বারের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদের।

দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়া জিনেদিন জিদানের দলের জন্য সুখবর, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ও লা লিগায় অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচকে সামনে রেখে মাঠে ফিরছেন রক্ষণের গুরুত্বপূর্ণ দুই স্তম্ভ সার্জিও রামোস ও দানি কারভাহাল।

বিজ্ঞাপন

বুধবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ ‘বি’তে জার্মান দল মনশেনগ্লাডবাখের মুখোমুখি হবে জিদানের শিষ্যরা। একইরাতে শাখতার দোনেতস্কের বিপক্ষে খেলবে ইন্টার মিলান।

গ্রুপে মনশেনগ্লাডবাখের পয়েন্ট ৮, শাখতার ও রিয়ালের ৭ এবং সবার নিচে থাকা ইন্টারের ৬। এই দুই ম্যাচে যারাই জয় পাবে, পাবে নকআউটের টিকেট।

বিজ্ঞাপন

ম্যাচের আগে জিদানের জন্য স্বস্তি হয়ে এসেছে অধিনায়ক রামোস ও কারভাহালের চোটমুক্তির খবর। ডান পায়ে হ্যামস্ট্রিংয়ের কারণে শেষ পাঁচ ম্যাচে খেলা হয়নি রামোসের।

শাখতার দোনেতস্ক ও সেভিয়ার বিপক্ষে আগের দুই ম্যাচে সুস্থ থাকলেও খেলার মতো ফিটনেস না থাকায় অধিনায়ককে নিয়ে ঝুঁকিতে থাকতে চাননি জিদান, বুধবারের ম্যাচে নিজেদের মাঠে রামোসের খেলা এক প্রকার নিশ্চিতই।

গত ২৭ নভেম্বর চোট পাওয়ায় স্কোয়াডের বাইরে ছিলেন কারভাহাল। মনশেনগ্লাডবাখ ম্যাচের জন্য মাদ্রিদের অনুশীলনে দেখা গেছে রাইটব্যাককে। বুধবারের ম্যাচে তাকে মাঠে দেখা যাবে কিনা সেটি ঠিক করা হবে আরও কয়েকটি ট্রেনিং সেশন শেষে।

জিদানের জন্য ভালো খবরের এখানেই শেষ নয়, চোট আর করোনা থেকে মুক্ত হয়ে অনুশীলনে ফিরেছেন আরেক রাইটব্যাক আলভারো অদ্রিওজোলা ও ফরোয়ার্ড লুকা জোভিচ। সবদিক মিলিয়ে হারানো খেলোয়াড়দের ফিরে পেয়ে মনশেনগ্লাডবাখের বিপক্ষে উজ্জীবিত হয়েই মনোযোগ দিতে পারবেন রিয়াল কোচ।