চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রাষ্ট্রভাষার দাবিতে পালিত হয় পতাকা দিবস

৫২’র ২১শে ফেব্রয়ারী গণপরিষদের বাজেট অধিবেশন যতই ঘনিয়ে আসছিল ততই জোরদার হচ্ছিল বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা কারার দাবির আন্দোলন।

ছাত্র জনতাকে সম্পৃক্ত করতে ১১ ফেব্রুয়ারী থেকে তিন দিন পালন করা হয় পতাকা দিবস। অর্থ সংগ্রহ করা হয় আন্দোলন জোরদার করতে।

আব্দুল মতিনের নেতৃতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদ ফেব্রয়ারীর ১১ তারিখ থেতে পতাকা দিবস পালন করে। এর উদ্দেশ্য ছিল ঢাকা সহ সারা দেশের মানুষকে রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনে সম্পৃক্ত করা।

Advertisement

পতাকা দিবস ভাষা সংগ্রামী আহমদ  রফিক বলেন, ছাত্রদের ও আমাদের মূল লক্ষ্য ছিল শুধু বিভিন্নভাবে এর প্রস্তুতিটা শেষ করা। এর মধ্যে ছিল পতাকা দিবস, মিছিল ও সভা করা।

সর্বদলীয় রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদর ও আন্দোলনকে এগিয়ে নিতে সভা সমাবেশে করে। আন্দোলন পরিচালনার জন্য অর্থ সংগ্রহ এবং গণমানুষের অংশ গ্রহন বাড়াতে পতাকা দিবস বিশেষ  ভ’মিকা পালণ করে।

ভাষা সংগ্রামী রওশন আরা বাচ্চু বলেন, শুধু বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলন করলে চলবে না। এটা প্রতিটি প্রদেশে করতে হবে। এজন্য আমরা  ১১, ১২ ও

১২ তারিখ পতাকা দিবস পালন করলাম। কালো ব্যাচ ধারণ করলাম। আন্দোলন যত জোরদার হতে থাকে ততই ভীতি দেখা দেয় শাসকদের মধ্যে।